Posts Tagged ‘স্বৈরতন্ত্র’


লিখেছেন: শাহেরীন আরাফাত

প্রচলিত সাংবিধানিক নিয়মে পাঁচ বছর ঘুরে আবারও জাতীয় সংসদ নির্বাচনের ডামাডোল শুরু হলো। চলছে নির্বাচনী প্রচারণা। সেই সঙ্গে জনমনে আবারও শঙ্কামৃত্যুর মিছিল এবং নির্বাচনী সহিংসতারও। সরকার, সরকারবিরোধী রাজনৈতিক দল, অথবা নির্বাচনপন্থী কথিত বাম দলগুলোর প্রচারণায় মনে হতে পারে, যেন নির্বাচন মানেই গণতন্ত্র! পাঁচ বছর পর পর ভোটগ্রহণ আর তাতে শাসক নির্ধারণের মানেই জনগণের গণতন্ত্র নয়। গণতন্ত্র শ্রেণীনিরপেক্ষও নয়। নির্বাচন প্রশ্নে কেন্দ্রীয় বিষয়টি হলোআমরা কোন ব্যবস্থায় নির্বাচনের কথা বলছি! (বিস্তারিত…)

Advertisements

                                                                                                   ২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৪

hok-kolorob-653423প্রথমেই যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র আন্দোলনে যুক্ত সকল আন্দোলনকারী সহযোদ্ধাদের জানাই লাল সালাম!

যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের সাম্প্রতিক ছাত্র আন্দোলনে আমরা একই সাথে উজ্জীবিত এবং মর্মাহত। পুলিশি ও সন্ত্রাসী হামলায় আহতদের কষ্টে আমরা মর্মাহত। আবার স্বৈরতান্ত্রিক, ফ্যাসিবাদী, নিপীড়ক ব্যবস্থার বিরুদ্ধে দুর্বার আন্দোলনে আমরা উজ্জীবিত। (বিস্তারিত…)


লিখেছেন: বখতিয়ার আহমেদ

ru-movement-21ক্যাম্পাস পরিস্থিতি গত দুইদিন স্নায়ুতন্ত্রে এমন চাপ সৃষ্টি করে রেখেছিল যে কাজকর্ম লাটে উঠেছিল। নিজের অফিসে ঢুকতে পারছিলাম না বিকেলের আগে, ধর্মঘটের জন্য ছাত্ররা ভবন তালা মেরে রাখছে সকালবেলা। কাজ সামলাতে পরশু রাত জেগেছি, সকালে উঠেছি দেরিতে।

সাড়ে এগারোটার দিকে ফোকলোর বিভাগের সুস্মিতা চক্রবর্তীর ফোনে জানলাম আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের উপর হামলা হয়েছে। আশংকা আগেই ছিল, তারপরেও সাথে কোথাও বোধহয় আশাও ছিল, হাজার হাজার ছাত্র তো গত কয়দিনের আন্দোলনে ক্যাম্পাসের একটা পাতাও ছেড়েনি। মারবে কোন অজুহাতে? (বিস্তারিত…)


লিখেছেন: বাধন অধিকারী

ru-movement-17রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে সান্ধ্যকালিন বাণিজ্যিক মাস্টার্স কোর্স এবং বর্ধিত বেতনভাতা প্রত্যাহারের দাবিতে চলা আন্দোলনকে বরাবরের মতোই দমননীতির মধ্য দিয়ে মীমাংসার সিদ্ধান্ত নিয়েছে মিনি রাষ্ট্র বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। শনিবার রাতের আঁধারে অপারেশন সার্চ লাইটের কায়দার হানাদার রাষ্ট্রীয় সন্ত্রাসী বাহিনী পুলিশ আর আজকের রাজাকার বাহিনী (শিক্ষার্থীদের সঙ্গে বেঈমানীর কারণে বলছি) ছাত্রলীগের সমন্বয়ে শিক্ষার্থীদের হলে রেইড, আন্দোলনকারীদের মানসিক নির্যাতন, হুমকি, সবই সম্পন্ন হয়েছে রাতের আঁধারে। (বিস্তারিত…)


লিখেছেন: শাহেরীন আরাফাত

election-2013গত কয়েকদিন দেশের প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়া ছিল বেশ সরগরম, যার মোদ্দা কথা চার সিটি কর্পোরেশনের নির্বাচন। যেহেতু বর্তমান প্রেক্ষাপটে সরকারের তরফে কেবল ঘরোয়া রাজনীতিই বৈধ রাখা হয়েছে, তাই রাজনৈতিক বিশ্লেষণের হিসেব কষা ও প্রচারাভিযানের কাজে শাসক শ্রেণীর সরকারী ও বিরোধী অংশ উভয়েই বেশ ব্যস্ত সময় কাটিয়েছে এখানকার ইলেক্ট্রনিক মিডিয়া, তথা টক শোগুলোতে। (বিস্তারিত…)

এরশাদের স্বৈরতান্ত্রিক সুসমাচার এবং বর্তমান ‘গণতান্ত্রিক’ রাজনৈতিক দলের অবস্থা

Posted: জুন 30, 2012 in দেশ, মন্তব্য প্রতিবেদন
ট্যাগসমূহ:, , , , , , , , , , , , , , , , , , , , , , , , , , , , , , , , , , ,

লিখেছেন: আবিদুল ইসলাম

গণতান্ত্রিক সামরিক স্বৈরতন্ত্র...বাংলাদেশের মহান ‘গণতন্ত্রী’,বহু চমকপ্রদ কর্মের অপনায়ক, পীরবাদের প্রাতিষ্ঠানিকীকরণের রূপকার, রাষ্ট্রধর্ম নামক অভিনব ধারণার প্রবর্তক সাবেক রাষ্ট্রপতি এইচ এম এরশাদ গত ২৬ জুন জাতীয় সংসদে দাঁড়িয়ে তাকে আর ‘স্বৈরাচারী’ না বলার জন্য সবাইকে ‘অনুরোধ’ জানিয়েছেন। তার এই অনুরোধের বিশেষত্ব এই যে, সরকারি ক্ষমতার রক্ষণব্যূহের অভ্যন্তরে বসেই তিনি তার এই ‘সবিনয়’ বক্তব্য পেশ করেছেন। ১৯৯০ সালের পর দীর্ঘ সময় ক্ষমতার বাইরে থাকা অবস্থায় এই জাতীয় ‘অনুরোধ’ করার মতো অবস্থা তার ছিল না। কারাবন্দী অবস্থা থেকে মুক্তির জন্য বিভিন্ন পর্যায়ে দর কষাকষি, মাথার ওপর ঝুলে থাকা মামলার খড়গ অপসারণ, রাষ্ট্রপতি কিংবা ক্ষমতাসীন দলের শরিক হওয়ার জন্য উপর্যুপরি আলোচনা চালানোপর্যায়ক্রমিক ধাপগুলো পেরিয়ে আসবার পর নিজের এতো সাফল্যে মোহিত হয়েই এখন তার মনে হচ্ছে দীর্ঘ রাজনৈতিক জীবনে শরীরে লেগে থাকা কলঙ্কের শেষ পঙ্কিল ছাপটুকু মুছে ফেলা দরকার। এই কারণেই সংসদে বাজেট আলোচনার ওপর বক্তব্য প্রদান করতে গিয়ে তার এই স্বৈরাচারী প্রসঙ্গের অবতারণা। এই বক্তব্য প্রদানের সময় তিনি আরো বলেছেন, তাকে স্বৈরাচারী বলা হলে তিনি নাকি ‘মনে ব্যথা’ অনুভব করেন! সরকার দলীয় অন্যান্য সংসদ সদস্যও তার এই বক্তব্যকে এই সময় সমর্থন জানান (সূত্র: bdnews24.com)

এরশাদের এই কথার সূত্র ধরে বলতে হয়, এখন যদি রাজাকারকুল শিরোমণি গোলাম আজম কারাগারের প্রকোষ্ঠে বসে বলেন যে তাকে ‘যুদ্ধাপরাধী’ বলে আখ্যায়িত করলে তার বুকের বাম দিকে বিদ্যুৎ চলকের মতো কিঞ্চিৎ বেদনার উদ্ভব হয় এবং এ কারণে তাকে আর যুদ্ধাপরাধী না বলাই উচিত, তখন কী করা যাবে? সরকারি দলের লোকজন কি তার এই কথা মেনে নেবেন? নাকি গোলাম আজম এবং তার দল এখন ক্ষমতায় নেই বলে তাদের বক্তব্য এক্ষেত্রে উপেক্ষিত হবে এবং মহান ‘গণতন্ত্রী’ এরশাদ বর্তমান সরকারের শরিক হওয়ার কারণে তিনি সংসদের শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত কক্ষে রাষ্ট্রীয় নিরাপত্তা ব্যবস্থার ঘেরাটোপে দাঁড়িয়ে এ জাতীয় বক্তব্য দিতে পারেন এবং সংসদে উপস্থিত সরকারের সংসদ সদস্যরা এ কথা মেনে নেন? (বিস্তারিত…)