Posts Tagged ‘রাষ্ট্রীয় সন্ত্রাস’


লিখেছেন: লাবণী মণ্ডল

শিল্প ও সাহিত্যের ক্ষেত্রে সমালোচনা হলো সংগ্রাম ও বিকাশের অন্যতম প্রধান পদ্ধতি। এর গুরুত্ব উপলব্ধি করেই বস্তার বইটি নিয়ে দুচার কথা লিখতে বসলাম। এই আলোচনা বা সমালোচনা কতটুকু সাহিত্যমানসম্পন্ন হবে, সে সম্পর্কে নিশ্চিত নই। সেক্ষেত্রে এটিকে আমার উপলব্ধির বিকাশ ধরে নেয়াটাই শ্রেয়। রাজনৈতিক দর্শনে নিজের সীমাবদ্ধতা মেনে নিয়েই লিখছি। শাহেরীন আরাফাতের লেখা বইটির পুরো নামবস্তার রাষ্ট্রকর্পোরেটহিন্দুত্ববাদের যৌথ সন্ত্রাস। এটি ২০১৭ সালের মে মাসে উৎস পাবলিশার্স থেকে প্রকাশিত হয়। প্রচ্ছদ করেছেন শিশির মল্লিক।

বর্তমান সময়ে বাংলাদেশসহ তামাম দুনিয়ায় সাম্রাজ্যবাদ ও প্রতিক্রিয়াশীল শক্তিগুলো শ্রমিকশ্রেণী এবং জনগণের মুক্তি ও অগ্রগতির পথে নানা উপায়ে বাধা সৃষ্টি করার জন্য সংহত হচ্ছে। শিল্পসাহিত্যকেও তারা কাজে লাগাচ্ছে ব্যাপকভাবে। এমন সময়ে বস্তার বইটি নিয়ে আলোচনার গুরুত্ব অনস্বীকার্য। তবে উৎকৃষ্ট সাহিত্য সমালোচনা করাটা নিতান্ত সহজ কাজ নয়। বরং এমন বইযেখানে সমাহার ঘটেছে ইতিহাস, রাজনীতি, অর্থনীতি, আগ্রাসন, সংগ্রাম ও প্রতিরোধের বিপুল তথ্যতা নিয়ে আলোচনা করাটা বেশ কঠিন ও জটিল। (বিস্তারিত…)

Advertisements

লিখেছেন: শাহেরীন আরাফাত

Pablo-Picasso-massacre-in-koreaহায়েনার দল

যাদের মুখে লেগে আছে

আমার আপনজনের রক্ত

যাদের আঁচরে ক্ষতবিক্ষত

আমার মাবোন

আমার জন্মভূমি (বিস্তারিত…)


লিখেছেন: সব্যসাচী গোস্বামী

আজাদি বনাম দেশপ্রেম

umar khalid-1দেশপ্রেমীদের হাতে পড়ে আজাদি শব্দটাকে লাঞ্ছিত হতে দেখা যাচ্ছে বেশ কিছুদিন ধরে। দিল্লির (জওহরলাল নেহেরু বিশ্ববিদ্যালয়) জেএনইউ থেকে কলকাতার যাদবপুর, সর্বত্র এই লাঞ্ছনা লক্ষ্যনীয়। সাধারণভাবে ইতিহাস বইয়ে স্বাধীনতাগণতন্ত্র শব্দ দুটোকে আমরা পাশাপাশি শান্তিপূর্ণ সহাবস্থানে দেখতে অভ্যস্ত ছিলাম। কিন্তু এদেশের প্রধান শাসকদলের লম্ফঝম্ফ দেখে মনে হচ্ছে কেউ যদি স্বাধীনতা চায় তাহলে তার গণতন্ত্র হরণ করাটাই যেন আজ এদেশে নিয়ম হয়ে দাঁড়িয়েছে! সম্প্রতি জেএনইউএর ছাত্র সংসদের নির্বাচিত সভাপতি কানহাইয়া কুমারের গ্রেপ্তার; অপর তিন ছাত্র উমর খালিদ, অনির্বাণ ভট্টাচার্য ও অশ্বত্থীকে জঙ্গী বলে দেগে দিয়ে গ্রেপ্তারের ষড়যন্ত্র; একাধিক ছাত্রছাত্রীদের বিরুদ্ধে সিডিশান আইনে মামলা দায়ের করা, অধ্যাপক এস আর গিলানিকে গ্রেপ্তার, এসব তো আছেই। এমনকি ন্যায়ালয়ে আইনের রক্ষকদের সামনে অভিযুক্তকে মারধর করা এবং এ হেন বেআইনী কাজ করার পরেও প্রকাশ্যে বুক ফুলিয়ে ঘুরে বেরানো, এক চরম ত্রাসের রাজত্বের ইঙ্গিত দিচ্ছে। ঘটনার ঘনঘটায় বেশ কিছু প্রশ্ন সামনে চলে আসছে। (বিস্তারিত…)


কৃষি জমিতে আগ্রাসন রুখে দাও, চা শ্রমিকদের বাঁচতে দাও

বন্ধুগণ,

“‌কৃষি জমিতে আগ্রাসন রুখে দাও, চা শ্রমিকদের বাঁচতে দাওএই শ্লোগানকে সামনে রেখে হবিগঞ্জের চান্দপুরের চা শ্রমিকদের কৃষি জমি স্পেশাল ইকোনমিক জোনের নামে কেড়ে নেবার প্রক্রিয়ার প্রতিবাদে আমরা মঙ্গলধ্বনি, সমাজতান্ত্রিক ছাত্রফ্রন্ট, বিপ্লবী ছাত্র মৈত্রী এবং বাংলাদেশ ছাত্র ফেডারেশনএই চারটি সংগঠনের ঝিনাইদহ শাখার আয়োজনে ঝিনাইদহের পায়রা চত্বরে আজ শনিবার, ০৯ জানুয়ারি ২০১৬ সকাল ১১.৩০টায় একটি মানব বন্ধন ও সংহতি সমাবেশের আয়োজন করেছিলাম। কিন্তু সমাবেশে বিপ্লবী ছাত্র মৈত্রীএর যুগ্ম আহ্বায়ক প্রসেনজিত বিশ্বাস বক্তব্য প্রদানকালে পুলিশের বিশেষ শাখা (স্পেশাল ব্র্যাঞ্চ)-এর কর্মকর্তারা এসে মাইক বন্ধ করে দেন আমাদের লিফলেটে সরকারবিরোধী বক্তব্য থাকা এবং সমাবেশে সরকারবিরোধী বক্তব্য প্রদানের অজুহাতে। এরপর তারা আর মানব বন্ধন অনুষ্ঠিত হতে দেন নি। স্বাধীন বাংলাদেশে সভাসমাবেশের উপর পুলিশী নিষেধাজ্ঞা জনগণের গণতান্ত্রিক অধিকারের উপর অগণতান্ত্রিক হস্তক্ষেপ ছাড়া আর কিছুই নয়, এ ধরনের ঘটনা এই দেশকে ক্রমাগত একটি পুলিশী রাষ্ট্রে পরিণত করছে। (বিস্তারিত…)


pyching-mong-11

লিখেছেন: পাইচিংমং মারমা

()

দোস্ত,

তোরা কেমন আছিস?

কেমন আছে চেঙেমেইনীহাজলংক’তাউ খ্যং? বনপাহাড় আর উপত্যকার মানুষেরা কেমন আছে?

দেশ ছেড়ে আসার আগের দিনটা ছিলো আওয়ামীলীগের জন্য ‘গণতন্ত্রের বিজয় দিবস’ আর বিএনপির ‘গণতন্ত্রের মৃত্যু দিবস’। শেষ দিনের মত কেনাকাটা করতে বের হয়েছি। ঢাকা শহরের যেসব রাস্তা আওয়ামী লীগের ঠ্যাঙাড়ে বাহিনীর দখলে ছিলো সেখানে তারা মুজিবের ভাষণ আর দেশাত্মবোধক গান বাজিয়েছে লাঠিসোটা নিয়ে। (বিস্তারিত…)


ছত্রধর মাহাতোর প্রতি কমরেড সব্যসাচী গোস্বামীর খোলা চিঠি

লিখেছেন: সব্যসাচী গোস্বামী

chotrodhar-mahatoআপনার সঙ্গে আমার কোনদিন আলাপ হয়নি ছত্রধর। লালগড় আন্দোলনের উত্তঙ্গ সময়ে আমি রাজদ্রোহিতার অভিযোগে কারান্তরালে। মুক্ত আকাশের নীচে ফিরে আসার আগেই পুলিশ আপনাকে গ্রেপ্তার করেছে ইউএপিএ আইনে। আমরা দুজনে ছিলাম তখন দুই জেলে। আলাপের আর সুযোগ হলো কোথায়? তবু আজ যখন আপনার এবং আপনার বন্ধু, সহযোদ্ধাদের যাবজ্জীবন সাজার রায় শুনলাম, মনটা কেমন বিষন্ন হয়ে পড়ল। হৃদয়টা বিস্ফোরিত হয়ে উঠল। একেই কি বলে দেয়ালে পিঠ ঠেকে যাওয়া মানুষদের মধ্যেকার সৌভ্রাতৃত্ববোধ?? (বিস্তারিত…)


১৪ মার্চ ২০১৫, বেলা ১১টা,

কমরেড নির্মল সেন মিলনায়তন,

২৩/, তোপখানা, ঢাকা১০০০।

প্রিয় সাংবাদিক বন্ধুগণ,

আমাদের সংগ্রামী শুভেচ্ছা গ্রহণ করুন। আমরা এমন এক সময় আপনাদের সামনে হাজির হয়েছি যখন দীর্ঘ ৬৮ দিন জুড়ে আওয়ামী ও বিএনপি জোটের সংঘাতহানাহানিতে জনজীবন বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে। বিএনপি নেত্রীর গতকালের সংবাদ সম্মেলন এবং আওয়ামীলীগ নেতা মোহম্মদ হানিফের প্রতিক্রিয়া থেকে এটা স্পষ্ট হয়েছে যে, এ দুই জোট যার যার অবস্থানে অনড় রয়েছে এবং এ গণবিরোধী রক্তাক্ত সংঘাত তারা চালিয়ে যেতে প্রস্তুত।

gn2আপনারা জানেন, এ পর্যন্ত আওয়ামী জোটের রাষ্ট্রীয় সন্ত্রাস এবং বিএনপিজামাত জোটের পেট্রোল বোমা সন্ত্রাসে ১২১ জন হত্যার শিকার হয়েছে। এসব সন্ত্রাসে হাজার হাজার মানুষ আহত এবং ১৩৭৫টি যানবাহন ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগের শিকার হয়েছে। কেবল তাই নয়, অর্থনৈতিক কর্মকান্ডে স্থবিরতা এবং যাতায়াতের সমস্যার কারণে শ্রমজীবী মানুষের কর্মহীনতা ব্যাপকভাবে বৃদ্ধি পেয়েছে। অবরোধের অজুহাতে কারখানা মালিকরা শ্রমিকদের বেতন পরিশোধ করছে না। কৃষিপণ্যের বাজারজাতকরণ বাধাগ্রস্থ হওয়ায় কৃষক উৎপাদন খরচটুকু পর্যন্ত ওঠাতে পারছেনা। এসএসসি পরীক্ষার্থীসহ ৪ কোটি ৭৪ লাখ শিক্ষার্থীর শিক্ষা জীবন আজ বিপর্যস্ত। সমগ্র অর্থনৈতিক ক্ষতির পরিমাণ দাঁড়িয়েছে লক্ষ কোটি টাকা। সর্বোপরি গুম, ক্রস ফায়ার, গ্রেফতার বাণিজ্য, দলীয় নির্যাতন, পুলিশি নির্যাতন, পেট্রোল বোমা, ককটেল ইত্যাদির কারণে এক ত্রাসের রাজত্ব কায়েম হয়েছে। জনগণ আজ চরম নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন। (বিস্তারিত…)


লিখেছেন: অরবিন্দ অনন্য

naxal-saluteঐ দ্যাখ আমার বাড়ি, আমার ঘর

বিস্মিত হইয়ো না!

ঐখানেই আমার ঘর ছিল,বাপ দাদার কবর ছিল,

ঐ সবুজ বনে আমার অধিকার ছিল (বিস্তারিত…)


জন এম. কোয়েইটজি

অনুবাদ: বখতিয়ার আহমেদ

m-j-coetzeeনাথানিয়েল হ্যাথর্ন তার ‘স্কারলেট লেটার’এ লিখেছিলেন, “একটি উপনিবেশ যখন কোথাও শেকড় গাড়ে, নিতান্তই বাস্তব প্রয়োজনে, একেবারে শুরুতেই যে পদক্ষেপটি নেয় তা হল অধিকৃত ভূমির একটি অংশে গোরস্থান এবং আরেকটি অংশে কারাগার স্থাপন”। উপনিবেশ হিসেবে দক্ষিণ আফ্রিকাও এর ব্যতিক্রম নয়, দেশটির সারা মুখ জুড়ে গুটি বসন্তের দাগের মত ছড়িয়ে আছে অসংখ্য কারাগার, হ্যাথর্ন যাদের নাম দিয়েছিলেন “সভ্য সমাজের কালো ফুল”। (বিস্তারিত…)


লিখেছেন: ফারুক আহমেদ

election-2013নবম সংসদ নির্বাচনের আগে আওয়ামীলীগ যে নির্বাচনী ইশতেহার জনগণের সামনে হাজির করেছিল সরাসরি অন্যায় সুবিধা প্রাপ্তরা ছাড়া দেশের ব্যাপক অধিকাংশ মানুষ পরবর্তীতে উপলব্ধি করেছেন, তা ছিল একটি রাজনৈতিক দলের প্রতারণার দলিল। সারা দেশে শহর, বন্দর, গ্রাম, গঞ্জের সর্বত্র জনগণের শ্রমার্জিত কোটি কোটি টাকায় নির্মিত বিলবোর্ডগুলো প্রতারণার সেই সাক্ষ্য বহন করে চলেছে। বিলবোর্ডের মিথ্যা সাজানো গল্প মানুষ বিশ্বাস করতে পারে না, কারণ মানুষ ভুক্তভোগী। (বিস্তারিত…)