Posts Tagged ‘ভারত’


লিখেছেন: সৌম্য মন্ডল

নকশালবাড়ির রাজনীতি নিয়ে কিছু বিভ্রান্তি সম্পর্কে আলোচনা করার জন্য এই লেখা। যারা সব জানেন, এটা তাদের জন্য লেখা নয়, বরং যারা জানতে চান এ লেখা তাদের জন্য।

) নকশালবাড়ি থেকে অনেক বড় বড় সশস্ত্র কৃষক আন্দোলন বাংলায় বা ভারতে ঘটে গেছে। ঘটে গেছে এবং ঘটে চলেছে অনেক প্রতিরোধ। কিন্তু তবুও সেই আন্দোলনগুলো থেকে নকশালবাড়ির নাম স্বতন্ত্র। কিন্তু কেন? কারণ নকশালবাড়ি আন্দোলন শুধু ১৯৬৭ সালের একটি গ্রাম, বা একটি কৃষক আন্দোলনের নাম নয়। যদি তাই হতো, তাহলে অন্যান্য আন্দোলনগুলোর থেকে আলাদাভাবে নকশালবাড়ির গুরুত্ব থাকতো না। নকশালবাড়ি একটা বিশেষ রাজনৈতিক লাইন বা আন্ডারস্ট্যান্ডিংএর নাম। (বিস্তারিত…)


লিখেছেন: অয়ন চৌধুরী

naxal-3ছত্তিশগড়ের গহীন অরণ্য হতে বের হচ্ছে কয়েকটা লাশ

জাতীয় পতাকায় মোড়া দুজন নিহত পুলিশ সৈন্য,

যারা ছিল জঙ্গলের অভিশাপ

আধিবাসী নারী ধর্ষণের বীর নায়ক

হত্যা আর লুন্ঠনের অগ্রগণ্য শিরোমণি,

রাষ্ট্রযন্ত্রের ব্যবহৃত কামানের খাদ্য

ক্ষমতা কুক্ষিগত করার মানব ঢাল।

(বিস্তারিত…)


লিখেছেন: সব্যসাচী গোস্বামী

%e0%a6%a8%e0%a6%b0%e0%a7%87%e0%a6%a8%e0%a7%8d%e0%a6%a6%e0%a7%8d%e0%a6%b0-%e0%a6%ae%e0%a7%8b%e0%a6%a6%e0%a6%bfমোদিজী নিজেকে দলিতদের সবচেয়ে বড় বন্ধু বলে দাবী করছেন। শুধু তাই নয় মোদিজী ও তার দল বিজেপি থেকে সংঘ পরিবার দিকে দিকে আম্বেদকারের স্তুতিতে ব্যস্ত হয়ে পড়েছেন। যদিও ভারতীয় সংবিধান তৈরির শুরুর সময় থেকে সংঘ পরিবার এই সংবিধানের বিরুদ্ধে সোচ্চার হয়েছিল। তাদের অভিমত ছিল যে, এই সংবিধান মনুস্মৃতিকে মর্যাদা দেয়নি। যা হোক, ন ক্ষমতায় আসার পর তাদের সেই সংবিধান মেনেই দেশ চালাতে হবে। অগত্যা আম্বেদকার নিয়ে আজ তারা মুখে অন্তত তাদের অবস্থানে ইউটার্ন করেছে। (বিস্তারিত…)


লিখেছেন: সব্যসাচী গোস্বামী

আজাদি বনাম দেশপ্রেম

umar khalid-1দেশপ্রেমীদের হাতে পড়ে আজাদি শব্দটাকে লাঞ্ছিত হতে দেখা যাচ্ছে বেশ কিছুদিন ধরে। দিল্লির (জওহরলাল নেহেরু বিশ্ববিদ্যালয়) জেএনইউ থেকে কলকাতার যাদবপুর, সর্বত্র এই লাঞ্ছনা লক্ষ্যনীয়। সাধারণভাবে ইতিহাস বইয়ে স্বাধীনতাগণতন্ত্র শব্দ দুটোকে আমরা পাশাপাশি শান্তিপূর্ণ সহাবস্থানে দেখতে অভ্যস্ত ছিলাম। কিন্তু এদেশের প্রধান শাসকদলের লম্ফঝম্ফ দেখে মনে হচ্ছে কেউ যদি স্বাধীনতা চায় তাহলে তার গণতন্ত্র হরণ করাটাই যেন আজ এদেশে নিয়ম হয়ে দাঁড়িয়েছে! সম্প্রতি জেএনইউএর ছাত্র সংসদের নির্বাচিত সভাপতি কানহাইয়া কুমারের গ্রেপ্তার; অপর তিন ছাত্র উমর খালিদ, অনির্বাণ ভট্টাচার্য ও অশ্বত্থীকে জঙ্গী বলে দেগে দিয়ে গ্রেপ্তারের ষড়যন্ত্র; একাধিক ছাত্রছাত্রীদের বিরুদ্ধে সিডিশান আইনে মামলা দায়ের করা, অধ্যাপক এস আর গিলানিকে গ্রেপ্তার, এসব তো আছেই। এমনকি ন্যায়ালয়ে আইনের রক্ষকদের সামনে অভিযুক্তকে মারধর করা এবং এ হেন বেআইনী কাজ করার পরেও প্রকাশ্যে বুক ফুলিয়ে ঘুরে বেরানো, এক চরম ত্রাসের রাজত্বের ইঙ্গিত দিচ্ছে। ঘটনার ঘনঘটায় বেশ কিছু প্রশ্ন সামনে চলে আসছে। (বিস্তারিত…)


লিখেছেন: আবিদুল ইসলাম

Bajrangi-Bhaijanগত ১৭ জুলাই ২০১৫ তারিখে ভারত সহ সারাবিশ্বে মুক্তি পেয়েছে কবির খান পরিচালিত ভারতীয় হিন্দি চলচ্চিত্র ‘বজরঙ্গি ভাইজান’। মুক্তির পরপরই সিনেমাটি বিরাট সাফল্যের মুখ দেখেছে, বলিউডের সিনেমার ইতিহাসে বেশ কয়েকটি রেকর্ড ভঙ্গের দিক থেকে প্রথম অথবা দ্বিতীয় স্থানে নাম লিখিয়েছে। চলচ্চিত্রের নাম ভূমিকায় অভিনয়কারী প্রখ্যাত ভারতীয় অভিনেতা সালমান খান সিনেমার প্রযোজক। ভারত, পাকিস্তান, বাংলাদেশ সহ সব স্থানেই দর্শকবৃন্দ চলচ্চিত্রটির প্রশংসায় পঞ্চমুখ। ভারতপাকিস্তান সম্পর্ককে ঘিরে কাহিনী আবর্তিত হওয়ায় দৃশ্যমান ঘটনাবলির অন্তরালে এর নিগূঢ় রাজনৈতিক তাৎপর্য অনেকের কাছে ভিন্নমাত্রায় উদ্ভাসিত হয়েছে। বিভিন্ন জন বিভিন্নভাবে একে ব্যাখ্যা করার চেষ্টা করছেন। (বিস্তারিত…)


লিখেছেন: আহমদ জসিম

Flag_of_Bangladesh_Nationalist_Partyকার্যত বিএনপি এখন কোথাও নেই! নেই ক্ষমতায়, নেই বিরোধী দলে, নেই আন্দোলনের মাঠে, নেই সংলাপের টেবিলে। নেই মানে দলটার অস্তিত্ব বিলীন হয়ে গেছে ব্যাপারটা মোটেও এমন নয়। বরং আজও সরকারের শক্তিশালী প্রতিপক্ষের নাম বিএনপি। আজও কোটি কোটি কর্মী, সমর্থক নিয়ে সমাজে বিরাজমান রাজনৈতিক শক্তির নাম বিএনপি। তাই স্বাভাবিক নিয়মেই প্রশ্ন আসে যে দলের এত জনসম্পৃক্ততা, এত বিশাল কর্মীবাহিনী; তার এমন করুণ হাল কেন হল? এই কেন এর উত্তর খোঁজার জন্য আমাদের দলটার রণকৌশলের দিকে একটু নজর দিতে হবে। জেনারেল এরশাদের পতনের পর থেকেই আমরা দেখে আসছি বিএনপিআওয়ামীলীগ এই দুই দলের পাল্টাপাল্টি ক্ষমতার পালাবদল। দেখেছি যে দল ক্ষমতা যায় তাদের সীমাহীন দুর্নীতি আর ভয়ানক গণবিচ্ছিন্নতা, দেখেছি ৮ম সংসদ নির্বাচনে বিপুল বিজয়ী দল বিএনপি নবম সংসদ নির্বাচনে ভয়াবহ পরাজয়। আবার দশম সংসদ নির্বাচনও যদি অবা, সুষ্ঠু, নিরপেক্ষভাবে হতো, তবে সেই নির্বাচনে যে আওয়ামীলীগের ভয়ানক ভরাডুবি হতো সেই ধারণা আমরা নানা জনমত জরিপ আর স্থানীয় সরকার নির্বাচনগুলোর ফলাফল বিশ্লেষণ করে ধারণ করতে পারি। (বিস্তারিত…)


লিখেছেন: আহমদ জসিম

national-consciousnessইদানীং আমাদের মিডিয়াতে বিপরীতমুখী কিছু সংবাদ সব সচেতন নাগরিকেরই দৃষ্টি কেড়েছে। যেমন ধরুন, যে দিন নিউজ হলো, আমাদের মাথাপিছু গড় আয় বেড়ে ১০৮০ ডলার হয়েছে আবার সেই দিনই প্রায় পত্রিকার প্রধান শিরোনাম ছিল জীবনমৃত্যুর সন্ধিক্ষণে দাঁড়িয়ে হাজার হাজার বাংলাদেশি সমুদ্রে ভাসছে! হ্যাঁ, এইসব সমুদ্রে ভাসা মানুষগুলো জীবনজীবিকার তাগিদ অবৈধ পথে স্বদেশ ছেড়ে বিদেশে পাড়ি দিতে গিয়েছিল। নিয়তি তাদের জীবনের কঠিনতম রূপটা দেখিয়ে দিল। (বিস্তারিত…)


লিখেছেন: নীলিম বসু

narendra-modiএই লেখা যে সময় লিখছি তখন ছত্তিশগড়ে সালয়া জুড়ুমের নবপর্যায় ঘোষিত, মুম্বাইতে এক বহুজাতিক হীরে রপ্তানী সংস্থায় চাকরির আবেদন করে এক মুসলমান প্রার্থী জবাব পেয়েছেন যে, ঐ কোম্পানী শুধু অমুসলমান নাগরিকদের চাকরি দেয় (যদিও এই নিয়ে সংবিধান অবমাননা, এফআইআর, কোম্পানীটির মধ্যে দায় এড়ানোর নাটক চলছে), দেশের দুটি রাজ্যে গোরু হত্যা নিষিদ্ধ করার মাধ্যমে একটা বড় অংশের নাগরিকের রুটিরুজি ও খাদ্যাভ্যাসে হস্তক্ষেপ করা হয়ে গেছে, নিহত হয়েছেন কুসংস্কারবিরোধী আন্দোলনের কর্মী, গত ১ বছরে ঘটে গেছে কমবেশি ৫০০টি ছোটো বড় সাম্প্রদায়িক হিংসা (পড়ুন সংখ্যালঘুদের ওপর আক্রমন), সংখ্যালঘু নিধনে অভিযুক্তরা বেকসুর খালাস পেয়েছেন কোর্ট থেকে, ‘ঘর ওয়াপসী’ নামক এক বিশাল ধর্মান্তকরণ কর্মসূচী দেশজুড়ে চলমান ইত্যাদি। এর সাথে ভারতের লোক দেখানো সংসদকেও এড়িয়ে গিয়ে অর্ডিন্যান্সের মাধ্যমে শাসক দলের ইচ্ছা অনুযায়ী আইন তৈরির এক ধারাবাহিকতা দেখা যাচ্ছে, বিপ্লবী আন্দোলন দমনে সেনা নামানোর হুঙ্কার শোনা যাচ্ছে, গুজরাটে জারী হয়েছে ঘৃণ্য কালা কানুন (যা আজ বা কাল আমরা কেন্দ্রীয় স্তরেও দেখতে পাবো)। কর্পোরেট ও রাষ্ট্রের হাত মেলানোর প্রমান কেন্দ্রীয় বাজেট (কৃষিতে ব্যয় বরাদ্দ কমানো, ১০০ দিনের কাজের মতো সামাজিক প্রকল্পগুলিতে যেটুকু ব্যয় বরাদ্দ ছিল, তাও কমিয়ে একই সাথে কর্পোরেট বেল আউটে বরাদ্দবৃদ্ধি ও গ্রামীন সামন্তশ্রেণীর বহুদিনের দাবী মেটানোর মাধ্যমে রাষ্ট্রের আধাসামন্ততান্ত্রিক আধাঔপনিবেশিক চরিত্রকে শক্তিশালী করার বাজেট) (বিস্তারিত…)


লিখেছেন: নীলিম বসু

Modi-1ক্ষোভ, যন্ত্রণা, হতাশা,রাগ অনেক জমে আছে এই দেশটায়। হিন্দু ফ্যাসিবাদী শক্তি সেগুলো গড়ে ওঠার জন্য দায়ী নয় কোনোভাবেই। আসাম্যমূলক শোষক সমাজে সেগুলো থাকবেই। সেগুলোকে কাজে লাগিয়ে তার স্বাভাবিক গতিপথকে পালটে দিয়ে অসাধারণ ধৈর্য্য, কৌশল, চাতুর্য্য ও নৈপূণ্যের সাথে হিন্দু ফ্যাসিবাদীরা নিয়ে যাচ্ছে এক বিকৃত ও মিথ্যা অহংকারের দিকে দেশটাকে। যে দেশের জনগণের ৮০% দিনে ২০ টাকার চেয়ে বেশি খরচ করতে পারে না, যে দেশের জনগণ ক্রমাগত উচ্ছেদ হচ্ছেন বা হওয়ার জন্য দিন গুনছেন তাঁদের বাসভূমিসংস্কৃতিভাষাজীবিকা থেকে তাঁকে একটা কিছুর গর্বে তো গর্বিত করে তুলতে হবে, না হলে কিভাবে জুটবে সস্তা শ্রম, বিশাল বাজার, অনিয়ন্ত্রিত মুনাফা! তাই সেই গর্ব হোক এমন কিছুর, যা সে ব্যক্তিগত বা সমবেত প্রচেষ্ঠায় কোনোভাবেই অর্জন করতে পারবে না; এমন কিছু, যা কাল্পনিকধূলোমাটির থেকে বহু দূরের, অলিক। এই অবাস্তব গর্বের খুড়োর কল এই দেশে গড়ে তুলছে এক রণক্ষেত্র। যে রণক্ষেত্রে শ্রেণীবন্ধুরাই অস্ত্র ধরেন শ্রেণীবন্ধুদের বিরুদ্ধে। মনে পড়ে ২০০২ গুজরাট? যেখানে দেশের তৃতীয় দরিদ্রতম জনগোষ্ঠীর বিরুদ্ধে ব্যবহৃত হয়েছিলেন দেশের দরিদ্রতম দুই জনগোষ্ঠী দলিত ও আদিবাসীরা? যে গুজরাটে হাজার বছর ধরে উচ্চবর্ণ, তথা হিন্দু ব্রাহ্মণ্যবাদীদের হাতে শোষিত, অবহেলিত, বঞ্চিত দলিতআদিবাসীরা তাঁদেরই শোষকদের নির্দেশে নেমে পড়েছিল মুসলিম নিধনে। দায় কার? এ তো আমরা ১৯৩০এর জার্মানি থেকে দেখে আসছি যে, কমিউনিস্টরা বাস ধরতে না পারলে, সেই বাসে উঠে নিজেদের লক্ষ্যে পৌঁছতে চায় ফ্যাসিবাদিরা। কোথাও রাইখস্ট্যাগ পোড়ে, তো কোথাও সবরমতি এক্সপ্রেস কোথাও আর্য শ্রেষ্ঠত্বের শ্লোগান, তো কোথাও হিন্দুরাষ্ট্রের আওয়াজ, এই তো পার্থক্য। (বিস্তারিত…)


লিখেছেন: আহমেদ মহিউদ্দিন

felani-21গত ৭ জানুয়ারী ২০১৫ ছিল বিশ্বব্যাপী আলোড়ন সৃষ্টিকারী ভারতের সীমান্তরক্ষী বাহিনী কর্তৃক বাংলাদেশের ১৫ বছর বয়সী কিশোরী ফেলানিকে নির্মমভাবে হত্যাকাণ্ডের চতুর্থবর্ষ। ফেলানি একটা নাম, যা ২০১১ সালের ৭জানুয়ারী বিশ্ববাসীর সামনে বাংলাদেশের মানুষের প্রতি প্রতিবেশী রাষ্ট্র ভারত কর্তৃক ঘৃণ্য মনোভাবের করুণতম চিত্র প্রকট করেছিল। সারা বিশ্ববাসীর সামনে এই ঘটনা উলঙ্গভাবে প্রকাশ পেলেও এর এখনও পর্যন্ত হতাশাজনক খবর হচ্ছে ভারতীয় আদালত কর্তৃক খুনি বিএসএফ সদস্যের বিরুদ্ধে কোন প্রমান না পাওয়ার অজুহাতে বেকসুর খালাস প্রদান। যদিও ফেলানির বাবার আপত্তির মুখে এই খুনের মামলার পূণরায় রিভিশন চলছে। (বিস্তারিত…)