Posts Tagged ‘বিদ্রোহ’


লিখেছেন: অজয় রায়

কলম্বিয়ায় গত ২ অক্টোবর বামপন্থী এফএআরসি (ফার্ক) বিদ্রোহীদের সঙ্গে সেদেশের দক্ষিণপন্থী সরকারের শান্তিচুক্তি গণভোটে প্রত্যাখ্যাত হয়েছে। ফলাফলে ৫০.২ শতাংশ না ভোট পড়েছে এবং ৪৯.৮ শতাংশ হ্যাঁ ভোট পড়েছে।[] স্পষ্টতই চরম দক্ষিণপন্থী শক্তিগুলির দাপট বাড়ায় সেদেশে মেরুকরণ তীব্র হচ্ছে। আর সংকট ঘনাচ্ছে। এদিকে সম্প্রতি শান্তিতে নোবেল পুরস্কার পেয়েছেন কলম্বিয়ার রাষ্ট্রপতি হুয়ান ম্যানুয়েল সান্টোস। যদিও তিনি পূর্বতন আলভারো উরিবে সরকারের প্রতিরক্ষামন্ত্রী থাকাকালে ফল্স পজিটিভ কেসের মতো বিভিন্ন গণহত্যায় মদত দিয়েছিলেন বলে অভিযোগ রয়েছে। (বিস্তারিত…)

Advertisements

gpcr-1966-2

লিখেছেন: অজয় রায়

গত ১৬ই মে মহান সর্বহারা সাংস্কৃতিক বিপ্লবের ৫০ বর্ষপূর্তী হয়েছে। সোভিয়েত ইউনিয়নে ১৯৫৬ সালে পুঁজিবাদের পুন:প্রতিষ্ঠার অভিজ্ঞতা ও চীনের প্রারম্ভিক নেতিবাচক অভিজ্ঞতার নিরিখে সাংস্কৃতিক বিপ্লবের (১৯৬৬১৯৭৬) সূচনা করা হয়েছিল মাও সেতুঙএর নেতৃত্বে।[] চীনের কমিউনিস্ট পার্টির মধ্যেকার যে শক্তিগুলি পুঁজিবাদ পুন:প্রতিষ্ঠা করার পক্ষপাতি ছিল, তাদের বিরুদ্ধে সংগ্রামে লক্ষ লক্ষ জনসাধারণকে সংগঠিত করা হয়েছিল। পার্টি ও রাষ্ট্রের মধ্যেকার বিশেষ সুবিধাভোগী আমলাতন্ত্রের বিরুদ্ধে জনগণকে বিদ্রোহ করার অধিকার দেওয়া হয়। যখন স্লোগান ওঠে, সদর দপ্তরে কামান দাগো। স্পষ্টতই সর্বহারা সাংস্কৃতিক বিপ্লবের অর্থ হচ্ছে কমিউনিস্ট পার্টিকে জনগণের সঙ্গে অঙ্গাঙ্গী ভাবে যুক্ত হতে হবে। এটাই মাও সেতুঙএর সূত্রায়িত গণলাইন। (বিস্তারিত…)


লিখেছেন: সব্যসাচী গোস্বামী

naxal-movement-321আজকের পৃথিবীতে সকল সংস্কৃতি, সকল সাহিত্য ও সকল শিল্পই বিশেষ শ্রেণীর সম্পত্তি এবং বিশেষ রাজনৈতিক লাইন প্রচার করাই তার কাজ। শিল্পের জন্য শিল্প, শ্রেণী স্বার্থের ঊর্ধ্বে অবস্থিত বা রাজনীতির সাথে সম্পর্কহীন ও স্বাধীন শিল্প বলে আসলে কিছুই নেই। প্রলেতারীয় সাহিত্য ও শিল্প হচ্ছে সমগ্র প্রলেতারীয় বিপ্লবী লক্ষ্যেরই একটি অংশ; লেনিনের ভাষায় তা হচ্ছে বিপ্লবী যন্ত্রেরই দাঁত এবং চাকা। (শিল্প ও সাহিত্য প্রসঙ্গে মাওয়ের ইয়েনানে প্রদত্ত ভাষণ থেকে গৃহিত) (বিস্তারিত…)

বাংলাদেশের কবি ও কবিতা – ৫ এবং ৬’এর দশক

Posted: জুলাই 9, 2013 in সাহিত্য-সংস্কৃতি
ট্যাগসমূহ:, , , , , , , , , , , , , , , , , , , , , , , , , , , , , , , , , , , , , , , , , , , , , , , , , , , , , , , , , , , , , , , ,

লিখেছেন: মতিন বৈরাগী

মখমলের জামা খুললেই দগদগে ঘাদশক ভিত্তিক কবি ও কবিতার আলোচনায় আমার সংশয় আছে। কারণ যে দশক থেকে কবি লেখা শুরু করেন তার পূর্ণতা পরবর্তী দশকগুলোতে লক্ষ্য করা যায়। পরবর্তী দশক এবং তার পরের দশকগুলোতে কবির বয়স অভিজ্ঞতা,দায়িত্ব অনুভব ও প্রকাশের সংযম ইত্যাদির পরিপক্কতা স্পষ্ট হয়ে ওঠে। আমরা পাই শিল্পরীতির ঋদ্ধি। তবুও দশক কে ভিত্তি করে কবিদের চিহ্নিত করা হয় কাব্যনির্মাণে তাঁদের শুরুর সময় বিবেচনা করে। পরবর্তির দশকগুলোতে নতুন কবিদের সংগে তাঁদের সংযোগ, অভিজ্ঞতার বিনিময় নতুন ভাবে প্রকাশ পায়। (বিস্তারিত…)


লিখেছেন: সৌরভ ব্যানার্জী

revolutionary-force-2যা যা পাখি উড়ে যা

পৃথিবী কাঁপিয়ে আসে ঐ ওরা

ভাঙল রে বাঁধ, উঠল যে ঝড়

আজ হবে শুধু ধ্বংস, নতুনের গোড়াপত্তন

আজ বধ হবে কংস, হবে রাজদ্রোহ

বলো বিদ্রোহ বিদ্রোহ (বিস্তারিত…)


বিশ শতকের প্রারম্ভ থেকে ওয়ালস্ট্রীট দখল করো আন্দোলন

ফ্রেড ম্যাগডফ

অনুবাদ: প্রশান্ত মাহমুদ

(এই লেখাটি ২০১১ সালে ফ্রেড ম্যাগডফ প্রদত্ত Lessons from a Long History of Dissent: From the Early Twentieth Century to Occupy Wall Streetশীর্ষক বক্তৃতার অনুলিখনের অনুবাদ। ২০১১ সালে লেখাটি পড়ার পর ভাল লেগেছিল। তাই তখন অনুবাদ করার লোভ সামলাতে পারিনি। এই লেখাটি অকুপাই ওয়ালস্ট্রীট আন্দোলনের সময়কার হলেও এর বিষয়বস্তু অনেক ক্ষেত্রেই আমাদের দেশের বর্তমান নৈরাজ্যিক অচল অবস্থাআমরা যারা নবীন তাদের জন্য প্রাসঙ্গিক আলোচনা, প্রশ্ন ও অনুসন্ধানের কিছুটা খোরাক হলেও হতে পারে। অনুবাদের যেকোন ভুল ধরিয়ে দিলে কৃতজ্ঞ থাকবো। মূল লেখাটি mrzine.orgএ পাওয়া যাবেঅনুবাদক) (বিস্তারিত…)


লিখেছেন: মনজুরুল হক

tea-workers-7ব্রিটিশরা তখন রেল বসাচ্ছে। বাংলার পলিমাটিতে রেল বসাচ্ছে কারণ এখানে পাকাসড়ক রেলের চেয়েও ব্যয়সাপেক্ষ। রেল লাইন নিঃসন্দেহে এক যুগান্তকারী সংযোজন। বাংলারচাষাভূষোরা সার সার দাঁড়িয়ে রেল বসানো দেখে। সেই কাজে নিয়োজিত শ্রমিকদের অধিকাংশই বাংলার বাইরে থেকে আনা হয়। প্রধানত বিহার, মধ্যপ্রদেশ, উড়িস্যা এবং অন্ধ্রপদেশ থেকে এই শ্রমিকদের আনা হয়। রেল বসানো শেষ হলে সেই শ্রমিকদের একটা বড় অংশ দেশে নাফিরে এই বাংলাতেই থেকে যায়। আরও কিছু পরে সেই শ্রমিকদের সাথে আরো ‘বাইরের’ শ্রমিক এনে পাঠিয়ে দেয় হয় সিলেটঅসম অঞ্চলে। (বিস্তারিত…)


ছবি

০৬.

art-1-পোষ্টারের ছবিটা বহুবার দেখেছি তোমার ঘরে

অমন শক্ত ফ্রেমে ছবিটা আটকালে কেনো !

প্রশ্নটা ছূঁড়ে দিয়ে হাত দিয়ে ছুঁলে ছবিটা

জোনাকীর মিহিন আলো ছড়িয়ে পড়লো তোমার স্পর্শে

তুমি আমার দিকে তাকালে, যেনো

হাজার প্রশ্নে ফুটেছে বিস্ময়(বিস্তারিত…)


revolutionary-force-2বিদ্রোহ হোক

(কবি শেখ বাতেন বন্ধু বরেষু)

 বিদ্রোহ হোক চলতে ফিরতে চলায়

বিদ্রোহ হোক দেখায় শেখায় বলায়

বিদ্রোহ হোক বীজফশলের বাড়ায়

বিদ্রোহ হোক মনের সকল ধারায় (বিস্তারিত…)


লিখেছেন: রাশেদুল হক

বিদ্রোহনুন নেই তেল নেই তাতে কি

মালিকের গুলা ভরা পাতে ঘি

সব কিছু সয়ে যাও নীরবে

মালিক করলে দয়া, বাঁচা মরা

তবু মালিকের সাথে মিছে লড়া ?

পরিণামে ভেবেছ তা কি হবে !

শ্রমিকের বেশি বাড় ভালো নয়

মালিক সে মহাজন কর ভয়

দুবেলা দুমুঠু যদি পেতে চাও

মালিকের আছে টাকা জানো বেশ

তোমার পকেট ফাঁকা সবই শেষ

মন দিয়ে কাজ শুধু করে যাও

মালিকের মন যদি কর জয়

খেয়ে পরে বাচবে তা নিশ্চয়

বিদ্রোহী হইয়োনাক ভুলে (বিস্তারিত…)