Posts Tagged ‘ফ্যাসিস্ট’


লিখেছেন: অশোক চট্টোপাধ্যায়

Modi_Hitlerএকবিংশ শতাব্দীর একটা দশক অতিক্রান্তির উত্তরপর্বে দাঁড়িয়েও বিগত শতাব্দীর নব্বইয়ের দশকটিকে বিস্মৃত হওয়া সম্ভব নয়। নব্বইয়ের দশকটি আমাদের দেশে উগ্র ধর্মীয় ফ্যাসিবাদের নগ্ন প্রকাশের দশক হিসেবে চিহ্নিত হয়ে থাকবে। ১৯০৭ খ্রিস্টাব্দে পাঞ্জাবের নবগঠিত হিন্দুসভা পরবর্তী আট বছরের মাথায় ১৯১৫ খ্রিস্টাব্দে সারা ভারত হিন্দুমহাসভা নামে আত্মপ্রকাশ করেছিল। এই ঘটনার ঠিক দশ বছরের মাথায় ১৯২৫ খ্রিস্টাব্দে প্রতিষ্ঠিত হয় জঙ্গি হিন্দুত্ববাদী সংগঠন রাষ্ট্রীয় স্বয়ংসেবক সঙ্ঘ বা আরএসএস। ১৯৬৪ খ্রিস্টাব্দে প্রতিষ্ঠিত হয় বিশ্বহিন্দু পরিষদ। এখন আর জনসঙ্ঘ নেই, সেখানে হয়েছে ভারতীয় জনতা পার্টি বা বিজেপি। সঙ্ঘপরিবারের মূল নিয়ন্তা শক্তি হলো আরএসএস। এর সহযোগী হিসেবে শিবসেনা সহ অন্যেরা তো আছেই। (বিস্তারিত…)


মূল: জোনাহ রাস্কিন

অনুবাদ: মেহেদী হাসান

The Iron Heelনষ্ট সময় ভাল লেখকদের দমিত করে, তবে তা তাদেরকে অবশ্য উৎসাহিতও করে থাকে। বইয়ের দোকান ও লাইব্রেরীগুলোতে নতুন ও ইদানীং আবির্ভূত হওয়া বইগুলোর দিকে তাকিয়ে দেখলেই বোঝা যাবে। প্রেসিডেন্ট জর্জ ওয়াকার বুশ প্রশাসন কর্তৃক গণস্বাধীনতা (civil rights) ও মানবাধিকারের উপর ভয়ানক আক্রমণ, অন্তত আর কিছু না হোক, বই প্রকাশকে বেগবান করেছে, ফিকশন এবং নন ফিকশন উভয় ধরনেরই, আমেরিকান গণতন্ত্রের ক্ষয়সাধন এবং সাম্রাজ্যবাদের দিকে তাড়িত বোধ করাকে দোষারোপ করে। জ্যাক লন্ডন বিংশ শতাব্দীর সবচেয়ে জনপ্রিয় আমেরিকান লেখক, যে জন্মগ্রহন করে ১৮৭৬ সালে, আমেরিকার জন্ম শতবার্ষিকীতে, এবং মারা যায় ১৯১৬ সালে, আমেরিকা বিশ্বযুদ্ধে প্রবেশের ঠিক একবছর পূর্বে আমেরিকার বিশ্বযুদ্ধে প্রবেশে বিস্মিত হওয়ার কিছু নেই। বাস্তবিকপক্ষে, কেউ একজন হয়ত অতি উৎসাহী হয়ে লন্ডনকে প্রতিষ্ঠাতা জনক হিসেবে অভিহিত করবেন রাজনৈতিক দমনপীড়ন সমন্ধীয় সমকালীন সাহিত্যের, এর মধ্যে উল্লেখ্যযোগ্য হল, হেনরি গিরক্সের দ্য এমার্জিং অথরিটারিয়ানিজম ইন দ্য ইউনাইটেড স্ট্যাটস, ম্যাথু রথস্কিল্ডসের ইউ হেভ নো রাইটস, ক্রিস হেসেসের আমেরিকান ফ্যাসিস্টস, রবার্ট কেনেডির ক্রাইম এগেইন্সট ন্যাচার এবং ফিলিপ রথের ২০০৩ সালে উদ্বেগ সৃষ্টিকারী উপন্যাস দ্য প্লট এগেইন্সট আমেরিকা। নিশ্চিতভাবেই এমন আরো অনেক কিছু আছে যা এই ভূখন্ডকে আরো অনেক বেশী আওতাভূক্ত করে। (বিস্তারিত…)


অনুবাদ: বন্ধুবাংলা

(মূল লেখাটি ১৯ নভেম্বর ২০১২ তারিখে কাউন্টার পাঞ্চে প্রকাশিত হয়।)

সাম্প্রতিক ইসরাইলি আগ্রাসনের প্রতিবাদে গাজায় যে বিক্ষোভআন্দোলন ফুঁসে উঠছে, ইসরাইল এই আন্দোলনের টুটি চেপে ধরার জন্য হামাসের সামরিক প্রধান আহমেদ জাবারিকে গুপ্ত হত্যা করে। হামাস দীর্ঘমেয়াদী যুদ্ধ বিরতিতে আন্তরিক থাকা সত্ত্বেও হামাস এই ঘটনায় ইসরাইলে শতাধিক রকেট হামলা চালায় যার কিছু তেলআবিবের নিকটবর্তী স্থানে আঘাত হানে। ফলে বিস্মিত হওয়ার কিছু নাই যে, ইসরাইল ব্যাপক সংঘর্ষের জন্য ভীত হয়ে পড়ে এবং গাজা দখল করে রকেট হামলার ভয়কে দূর করতে চাচ্ছে। (বিস্তারিত…)


লিখেছেন: আহমদ জসিম

সম্প্রতি মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী হিলারি ক্লিনটন বাংলাদেশ সফর করে গেল। সরকারের ভাষ্যমতে এই সফর দুই দেশের বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক জোরদার করার জন্য। অথচ আমরা সাধারণ জনগণ আমাদের সাধারণ অভিজ্ঞতা দিয়ে বুঝি বর্তমান বিশ্বে ডাকাতের ভূমিকায় অবতীর্ণ হওয়া মার্কিন মুল্লুকের কর্তাব্যক্তিদের সফর আদপে তাদের অনুগত শাসকের কাছ থেকে লুটের স্বীকারোক্তি আদায় করার আয়োজন মাত্র। আর ক্ষমতার মসনদে বসার জন্য আমাদের দেশের শাসকশ্রেণীর সকল অংশের হিলারির আর্শিবাদ পাওয়ার প্রতিযোগিতা আমরা দেখেছি রীতিমতো হতবিহ্বল হয়ে।

দেশে চলমান রাজনৈতিক সংকট তত্ত্বধায়ক সরকার প্রসঙ্গ নিয়ে। যে সংকট মহাবিপদ সংকেত হিসেবে আমাদের সামনে ঝুলে আছে। ঠিক এই রকম এক পরিস্থিতির সুযোগ নিয়ে সাম্রাজ্যবাদের মদদপুষ্ট ফখরুদ্দিনমঈনুদ্দিন সরকার ক্ষমতায় এসেছিল। আমরা কী আবারও সেই পরিস্থিতির মুখোমুখি হতে যাচ্ছি। অতি নাটকীয় কিছু না ঘটলে আদতে সেই সম্ভাবনা ১০০ভাগ। সেই সম্ভাবনা শতভাগ মনে করার কারণ, শেখ মুজিব বাকশাল গঠন করে রাষ্ট্রের প্রধানমন্ত্রী থেকে শেখ হতে চেয়েছিল। আর খালেদা জিয়া তার সর্বশেষ শাসনকালে আকণ্ঠ দুর্নীতিতে নিমজ্জিত হয়ে গদি চিরস্থায়ী করতে ছেয়েছিল। এখন সেই ভূত চেপেছে হাসিনার মাথায়। তাদের প্রভু রাষ্ট্রের প্রতিনিধি এসে সবক দিয়ে গেছে, চলমান সংকট নিয়ে দুই নেত্রীর সংলাপে বসতে হবে। তার সাথে সুর মিলিয়েছে সাম্রাজ্যবাদের অনুগত সুশীল সমাজ আর কর্পোরেট মিড়িয়াগুলো। ক্ষমতার মোহে হাসিনা এতটাই মশগুল আজ সে প্রভুর আদেশ মানতেও নারাজ। (বিস্তারিত…)