Posts Tagged ‘ফ্যাসিবাদ’


লিখেছেন : সুপ্রিয় বন্দ্যোপাধ্যায়

হিন্দুত্ব’ নামক ধর্মসংস্কৃতিভিত্তিক জাতীয়তাবাদের উত্থান

তুলনামূলকভাবে দেখলে দেখা যাবে, আজ যে হিন্দুত্ববাদের বিষবৃক্ষটি ফুলেফলে পল্লবিত হয়েছে, ব্রিটিশ সরকারই নিজেদের সাম্রাজ্যবাদী স্বার্থে তার বীজ মাটিতে বপন করেছিল১৮৫৭ সালের মহাবিদ্রোহের পর ভারতীয় জনগণের একত্রিত বিদ্রোহী চেতনাকে ভাঙতে উপনিবেশবাদী ব্রিটিশ শাসকরা নিয়ে এসেছিল,ভাগ করো ও শাসন করো’ নীতিমূলত এর ওপর ভিত্তি করেই ভারতবাসীর মননে সাম্প্রদায়িক বিভাজনের ঘনবিষ ঢুকিয়ে দেয় তারা। এরই মাধ্যমে ভারতীয় জনগণের ওপর তাদের শাসন, শোষণ ও লুণ্ঠনকে দীর্ঘায়িত করতে পেরেছিল১৮৭৫ সালে হান্টার সাহেবের লেখা ‘দ্য ইন্ডিয়ান মুসলমান’ বই থেকে ব্রিটিশরা আমদানি করেছিল ‘দ্বিজাতি তত্ত্ব’ (বিস্তারিত…)


লিখেছেন : শাহেরীন আরাফাত

যে দেশে মৌসুমী ঝড় মানেই
কয়েকটা ‘মূল্যহীন’ প্রাণের বিসর্জন
ফসলের মাঠে আগুন দেয় কৃষক
শ্রমিকের কলে লুটেরা নিয়ন্ত্রণ

অনিশ্চিত জীবন, অনিশ্চিত ভবিষ্যত
অনিশ্চিত প্রজন্ম, অনিশ্চিত কর্মসংস্থান
(বিস্তারিত…)


লিখেছেন : শাহেরীন আরাফাত

জানো

জনমে দেখিনি এমন পৃথিবী

এভাবে দেখবো, ভাবিওনি

জ্যামের শহর আজ ভুতুরে নগরী

তবু নির্মল বায়ুর মাঝে পাখির কাকলী

চিৎকার করে কিছু বলতে চাইছিলাম

মাথার উপর শকুনের চাহনি (বিস্তারিত…)


বিপ্লবী ছাত্রযুব আন্দোলনের বিবৃতি

করোনাভাইরাস প্রতিরোধে ব্যর্থ সরকার জনগণের বাকস্বাধীনতায় হস্তক্ষেপ করছে। তারা চায় না তাদের ব্যর্থতা নিয়ে কেউ কথা বলুক। তাদের অন্যায়ের সমালোচনা হোক। আর তাই তো ধারণা করা যায়, তাদের অনুগত লোকজনই স্বতন্ত্র জোটের ফেসবুক পেজ হ্যাকড করেছে। (বিস্তারিত…)


লিখেছেন : লাবণী মণ্ডল

করোনাভাইরাস। সারাবিশ্বে নেমে এসেছে দুর্যোগ। বাংলাদেশেও অঘোষিত লকডাউন চলছে প্রায় দেড়মাসের কাছাকাছি। এর মধ্যে গার্মেন্টসগুলো খুলে দিয়েছে সরকার ও মালিকপক্ষ। পরিবহন শ্রমিকরা আন্দোলন করছেন। কৃষকরা তাদের ফসলের ন্যায্যমূল্য পাচ্ছেন না। শ্রমিকরা তাদের শ্রমের মূল্যের দাবিতে অবরোধঅবস্থান করেই যাচ্ছেনকিন্তু সরকার গণবিরোধী, ফ্যাসিবাদী চেতনায় নির্বিকার। (বিস্তারিত…)


লিখেছেন : শাহেরীন আরাফাত

কমিউনিস্ট পার্টি কোনো দাতব্য সংস্থা বা চ্যারিটেবল ট্রাস্ট নয়। বিপ্লবী রাজনীতি আর চ্যারিটি এক নয়। অথচ ইদানিং দেখা যাচ্ছে, কেউ কেউ রাজনীতি আর চ্যারিটিকে গুলিয়ে ফেলছেন। বিপ্লবী রাজনৈতিক সংগঠনের প্রথম ও প্রধান কাজ হলো বিদ্যমান ব্যবস্থাকে প্রশ্ন করা, জনগণের সামনে শোষকদের উন্মোচন করা, দাবি আদায়ে আন্দোলনসংগ্রাম পরিচালনা করা, গণঅধিকার কায়েম করা। কোনো দাতব্য সংস্থা নিশ্চয় এমনটা করবে না! দাতব্য কর্মসূচি রাজনীতির একটি অংশ মাত্র, সমগ্র নয়। সংকটকালে জনগণের পাশে দাঁড়াতে হবে; কিন্তু রাষ্ট্র ক্ষমতায় আসীন না হয়ে সেটা কেবল আংশিকভাবেই করা সম্ভব। ভিক্ষা দেওয়াতে কোনো দোষ নেই, যে কেউ তা করতে পারেন; কিন্তু ভিক্ষা কেন চাইতে হবে, একটা উন্নত সমাজে কেন ভিক্ষুক থাকবে?- এ প্রশ্ন তোলাটাই বিপ্লবী রাজনীতির কাজ। (বিস্তারিত…)


লিখেছেন : অজয় রায়

রোজা লুক্সেমবার্গ এবং কার্ল লিবনেখটের শহীদ হওয়ার শততম বার্ষিকী পালিত হচ্ছে শুধু জার্মানিতে নয়, বিশ্বের বিভিন্ন দেশে১৯১৯ সালের ১৫ জানুয়ারি বার্লিনে দক্ষিণপন্থী ঘাতক বাহিনীর হাতে শহীদ হন তাঁরা[] তবে মেহনতি মানুষের আন্দোলনসংগ্রামে এই দুই বিপ্লবী কমিউনিস্ট আজও পথ দেখান

রোজা লুক্সেমবার্গের জন্ম ১৮৭১ সালে পোল্যান্ডে[] তিনি ১৫ বছর বয়সেই বিপ্লবী ক্রিয়াকলাপে জড়িয়ে পড়েনগ্রেফতার এড়াতে তাঁকে সুইজারল্যান্ডে চলে যেতে হয়। ১৯৯৮ সালে তিনি অবশ্য জার্মানিতে বসবাস শুরু করেন জার্মানির সোশ্যাল ডেমোক্রাটিক পার্টিতে (জার্মান এসপিডি) যোগ দেন। প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, ১৯১৪ সালের আগে আন্তর্জাতিক পর্যায়ে সমাজতান্ত্রিক আন্দোলন সোশ্যাল ডেমোক্র্যাসি নামেই পরিচিত ছিল (বিস্তারিত…)


লিখেছেন: শাহেরীন আরাফাত

বুয়েটে ছাত্র রাজনীতি নিষিদ্ধ করাকে কেউ কেউ ‘প্রশংসনীয় উদ্যোগ’ বলে মূল্যায়ন টানছেন। সেটা কেউ বলতেই পারেন, এটা হতে পারে কারও ব্যক্তিগত বা সাংগঠনিক মূল্যায়ন। কিন্তু এর মধ্য দিয়ে ওই ব্যক্তি বা সংগঠনের শ্রেণী চরিত্রটাও প্রকাশ পায়।

প্রথমেই আসা যাক, মিডিয়ার দায়বদ্ধতার প্রশ্নেঅভিভাবকদের অনেকেই সন্তান বা আপনজনের জীবন ও ভবিষ্যত নিয়ে শঙ্কিত হয়ে ছাত্র রাজনীতি নিষিদ্ধের পক্ষে অবস্থান নিতে পারেন। কারণ তার সামনে যে রাজনীতিটা সামনে আসে, সেটা হলোফ্যাসিবাদের গণবিরোধী সন্ত্রাসের রাজনীতি। এর বিপরীতে শক্তিশালী গণমুখী রাজনীতির অনুপস্থিতিই এমন অবস্থানের কারণ। কিন্তু যখন কথিত মূলধারার কোনো প্রতিষ্ঠিত পত্রিকা এমন অবস্থান নেয়, তখন বুঝতে হবেএখানে তাদের রাজনৈতিক স্বার্থ লুকিয়ে আছে। এটাই ‘বিরাজনীতিকরণের রাজনীতি’। দেশের অন্যান্য পত্রিকাও বুয়েটে ছাত্র রাজনীতি নিষিদ্ধের খবরটি শিরোনাম করেছে। কিন্তু প্রথম আলো এ শিরোনামের নিচে একটি প্রতিক্রিয়া ‘ছাত্র রাজনীতি নিষিদ্ধ করা উচিত’ শিরোনামে ছেপেছে। সেখানে বিশেষজ্ঞ বলতে যাদের মন্তব্য দেওয়া হয়েছে, তাদের প্রত্যেকেই এনজিওবাদী শিক্ষক। তাদের কাছে প্রগতিশীল ছাত্র আন্দোলন একটা মাথাব্যাথার কারণ, যা বিশ্ব ব্যাংকের প্রেসক্রিপশনে শিক্ষার বাণিজ্যিকীকরণ করতে বড় বাধা। আর ফ্যাসিবাদকে রাজনীতির একমাত্র ধরন হিসেবে উপস্থাপনের মধ্য দিয়ে কর্পোরেট স্বার্থে প্রথম আলো পাঠকের সামনে ওই বিরাজনীতিকরণের সাফাই গাইতে উপস্থিত হয়। (বিস্তারিত…)


লিখেছেন: অজয় রায়

দক্ষিণ আমেরিকার আমাজন অরণ্য পুড়ছে। বিশেষত, ব্রাজিলে এই দাবানল ভয়াবহ আকার ধারণ করেছে। এ বছরের প্রথম আট মাসে আমাজনে ৭২ হাজার বারেরও বেশি অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে। যা গত বছরের এই সময়ের তুলনায় ৮৪ শতাংশ বেশি। ব্রাজিলের মহাকাশ গবেষণা সংস্থাইনপে এই তথ্য জানিয়েছে।[] আগুনের ঘটনা ঘটেছে ভেনেজুয়েলা এবং বলিভিয়ায়ও। এর মধ্যেই জাতিসংঘের জলবায়ু সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে গত মাসের শেষ সপ্তাহে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে। সেখানে ব্রাজিলের রাষ্ট্রপতি জাইর বলসোনারো বলেন, আমাজন অরণ্যাঞ্চলকে পৃথিবীর ফুসফুস দাবি করা ভুল ধারণা। কিন্তু এই বক্তব্যের পক্ষে তিনি কোনো যুক্তি দেননি। এদিকে, জলবায়ু পরিবর্তনের মোকাবেলার প্রশ্নে ‘বিশ্ব নেতাদের নিষ্ক্রিয়তা এবং সেই সঙ্গে বলসোনারোর মার্কিন সফরের প্রতিবাদে প্রায় আড়াই লাখ মানুষ বিক্ষোভ করেছেন শুধু নিউইয়র্ক শহরেই।[] বিশ্বের নানা প্রান্তে লাখ লাখ মানুষ এ নিয়ে পথে নেমেছেন। (বিস্তারিত…)


লিখেছেন: শাহেরীন আরাফাত

গত ১৪ জুন অধ্যাপক সিরাজুল ইসলাম চৌধুরীর নেতৃত্বে সমাজতান্ত্রিক বুদ্ধিজীবী সংঘ পুনর্গঠিত হয়। অধ্যাপক সিরাজুল ইসলাম চৌধুরীকে আহবায়ক করে ১২ সদস্য বিশিষ্ট একটি কমিটি গঠিত হয়। এছাড়াও যারা কমিটি গঠনের সভায় উপস্থিত ছিলেন তাদেরকেও প্রতিষ্ঠাতা সদস্য হিসেবে বিবেচনা করা হবে বলে ঘোষণা করা হয়েছে। স্বাভাবিকভাবেই সংঘের বাইরের সমাজতন্ত্রে আস্থাশীল অন্যান্য প্রগতিশীল লেখকশিল্পীসাহিত্যিকবুদ্ধিজীবীগণ সমালোচনাপর্যালোচনা করে বিভিন্ন প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেছেন। কিন্তু এসব সমালোচনায় সাম্রাজ্যবাদবিরোধী বুদ্ধিজীবীদের একটি একক সংগঠনে সংগঠিত হওয়ার প্রক্রিয়াপদ্ধতি কি হওয়া উচিত, তার ব্যাখ্যা নেই। তাই সমাজতন্ত্রের একজন সমর্থক হিসেবে এ প্রশ্নে আমার অবস্থান ব্যক্ত করা দায়িত্ব মনে করছি। (বিস্তারিত…)