Posts Tagged ‘ফারুক আহমেদ’


লিখেছেন: ফারুক আহমেদ

toba-group-workersতোবা ফ্যাশনে প্রায় দেড় হাজার শ্রমিককে তিন মাস ধরে বেতন দেওয়া হচ্ছে না। এমন নয় যে, এই তিন মাস ফ্যাক্টরি বন্ধ ছিল। পুরোদমে ফ্যাক্টরি চালু ছিল। বিশ্বকাপের জার্সি নির্মাণ সহ সকল ধরণের কাজই সেখানে হয়েছে। অথচ শ্রমিকদের বেতন দেওয়া হয় নাই। এই তোবা ফ্যাশনের মালিকই তাজরিণ গার্মেন্টের মালিক। যেখানে এই মালিকের অবহেলার কারণে আগুনে পুড়ে শতাধিক শ্রমিকের মৃত্যু হয়েছিল। সেই মামলার দায়ে মালিক দেলোয়ার হোসেন জেলে। শ্রমিকদের বেতন না দেওয়ার পিছনে মালিকের জেলে থাকাকে অজুহাত হিসেবে দেখানো হচ্ছে। (বিস্তারিত…)

Advertisements

লিখেছেন: ফারুক আহমেদ

Budget-2014-15বাজেট ঘোষনার আগে এবং পরে কিছু মানুষের মুখে কতকগুলো শব্দ উচ্চারিত হয়ে বাতাসে ভেসে বেড়ায়। প্রবৃদ্ধি, জিডিপি, উচ্চাভিলাষী, বরাদ্দ, উন্নয়ন ইত্যাদি শব্দগুলোর সাথে সাধারণ মানুষের এক অর্থহীন পরিচয় ঘটে। এসব নিয়ে অর্থনীতিবীদ, বুদ্ধিজীবী, ব্যবসায়ী, দেশীয় এবং আন্তর্জাতিক নীতি নিধারকগণ বিচার বিশ্লষণ করেন, কাগজের পর কাগজ খরচ করেন, কথার পর কথা বলেন। খুবই প্রয়োজনীয় কাজ, সন্দেহ নেই। দেশ, রাষ্ট্র পরিচালনার জন্য এসব অপরিহার্য্য বটে। যে কোন কিছু করতে গেলেই হিসাবের প্রয়োজন আছে। যারা এই বাজেটের কেন্দ্রে তাদের নিজেদের মধ্যে ভাগবাটোয়ারার জন্য হলেও একটা হিসাব আবশ্যই থাকতে হয়। সেদিক দিয়ে তাঁদের দিক থেকে বিচার করলে বাজেট নিয়ে এসব তৎপরতা কোন গুরুত্বহীন ব্যাপার নয়। (বিস্তারিত…)


লিখেছেন: ফারুক আহমেদ

education-business-1পরীক্ষার প্রশ্নপত্র কেমন হবে তা নির্ভর করে পাঠদানের পদ্ধতির ওপর। এখানে পাঠদানের পদ্ধতি কেমন তা বুঝতে কোন গবেষণার প্রয়োজন পড়ে না, শিক্ষা কর্তাব্যাক্তিদের কথাতেই তা বুঝা যায়।প্রশ্ন পত্র ফাঁসের অভিযোগ খন্ডাতে মন্ত্রীমহোদয় যখন বলেন “বি.সি.এস ক্যাডাররা যে সাজেশন দেন সেগুলোর বেশিরভাগই কমন পড়ে” অতএব প্রশ্নপত্র ফাঁস হওয়ার কিছু নেই! মন্ত্রী মহোদয়ের এই কথায় শিক্ষা ব্যবস্থার যে আবরণটুকু ছিল তাও খুলে পড়ে গেছে।এখন আর প্রশ্ন ফাঁসের কোন অভিযোগ সমিচীন হবে না!কারণ ল্যাংটার কাপড় ফেঁসে যাওয়ার অভিযোগ নিশ্চয়ই কেউ তুলবেন না! (বিস্তারিত…)


লিখেছেন: ফারুক আহমেদ

IMG_1846উৎসব মানুষের সমাজ নির্মাণের এক গুরুত্বপূর্ণ উপায়। উৎসবের মধ্যদিয়ে মানুষে মানুষে যোগাযোগ যত দ্রুত সম্ভব তা অন্য কোন উপায়ে সম্ভব নয়। মানুষে মানুষে সুদৃঢ় ঐক্য গড়ে তুলবার জন্য উৎসব আনন্দের বিকল্প নেই। তবে সার্বজনীন উৎসব আনন্দের জন্য সার্বজনীন স্বার্থের সমাজ প্রয়োজন। নির্মম শ্রেণিবিভক্ত সমাজে সার্বজনীন উৎসব আনন্দ সম্ভব নয়। যাদের স্বার্থে এবং কারণে সমাজ শ্রেণিবিভক্তনির্মম, তাদের দ্বারা পরিচালিত উৎসব আয়োজন যে তাদের স্বার্থেই হবে এটা বুঝবার জন্য কোন পান্ডিত্যের প্রয়োজন পড়ে না। বাংলাদেশে এখন উৎসবকে সার্বজনীন নাম দিয়ে তা নিয়ে যে কর্পোরেট আয়োজন করা হচ্ছে, তার মধ্যদিয়ে সার্বজনীনতার আড়ালে শোষণকেই শোষকদের জন্য সর্বজনীন করা হচ্ছে। এ যেন শোষকদের ঐক্য প্রতিষ্ঠার এবং শোষিতদের ঘুম পাড়িয়ে রাখার এক সাংষ্কৃতিক উপায়। (বিস্তারিত…)


 

লিখেছেন: ফারুক আহমেদ

question-paper-leaksযে কোন পরীক্ষার প্রশ্নপত্র ফাঁস এখন এক সাধারণ ব্যাপারে পরিণত হয়েছে। এমন পরীক্ষা বর্তমানে অনুষ্ঠিত হতে কমই দেখা যায় প্রশ্নপত্র ফাঁসের অভিযোগ ওঠে না। অধিকাংশ ক্ষেত্রে সরকারী এবং সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ প্রশ্নপত্র ফাঁসের এসব ঘটনাকে অস্বীকার করলেও একে আড়াল করা সম্ভব হয় না। বরং অনেক ক্ষেত্রেই সরকারি কর্তৃপক্ষের এর বিপরীতে যুক্তি দ্বারা ঘটনার সত্যতাই গণমানুষের কাছে পরিষ্কার হয়। প্রশ্নপত্র ফাঁসের ঘটনা এখন এমনই এক ব্যাধিতে পরিণত হয়েছে যে,প্রাথমিক স্তর থেকে শুরু করে উচ্চ শিক্ষা পর্যন্ত সর্বস্তরে এই ব্যাধির বিস্তার। ২০১৩ সালে অনুষ্ঠিত প্রাথমিক সমাপনী পরীক্ষা এবং জুনিয়ার সমাপনী পরীক্ষার মত পরীক্ষায়ও পরীক্ষার প্রশ্নপত্র ফাঁসের অভিযোগ উঠেছে এবং কর্মকর্তাদের ব্যাখ্যায় তা জনমনে প্রতিষ্ঠিত হয়েছে।  (বিস্তারিত…)


লিখেছেন: ফারুক আহমেদ

national-flag১৯৭১ সালের ১৬ ডেসেম্বরের আগে এই জনপদের মানুষের লড়াই ছিল বিদেশী লুন্ঠক, শোষকদের বিরূদ্ধে। বিদেশী সাংষ্কৃতিক আধিপত্যের বিরূদ্ধে। লড়াই ছিল নিজস্ব সংষ্কৃতি নির্মাণে নিজস্ব একটি ভুখন্ডের জন্য। ২৪ বছরের লড়াই সংগামের মধ্যদিয়ে ১৯৭১ সালে চূড়ান্ত লড়াইয়ে এই জনপদ থেকে বিদেশীদের শাসনের আবসান ঘটেছিল। মূল্য দিতে হয়েছিল। ত্রিশ লক্ষ মানুষকে জীবন দিতে হয়েছিল। আড়াই লক্ষ নারীকে পাষন্ডিক নির্যাতনের শিকা্র হতে হয়েছিল। অসংখ্য মানুষকে গৃহহারা, সম্পদ হারা হতে হয়েছিল। (বিস্তারিত…)


লিখেছেন: ফারুক আহমেদ

election-2013নবম সংসদ নির্বাচনের আগে আওয়ামীলীগ যে নির্বাচনী ইশতেহার জনগণের সামনে হাজির করেছিল সরাসরি অন্যায় সুবিধা প্রাপ্তরা ছাড়া দেশের ব্যাপক অধিকাংশ মানুষ পরবর্তীতে উপলব্ধি করেছেন, তা ছিল একটি রাজনৈতিক দলের প্রতারণার দলিল। সারা দেশে শহর, বন্দর, গ্রাম, গঞ্জের সর্বত্র জনগণের শ্রমার্জিত কোটি কোটি টাকায় নির্মিত বিলবোর্ডগুলো প্রতারণার সেই সাক্ষ্য বহন করে চলেছে। বিলবোর্ডের মিথ্যা সাজানো গল্প মানুষ বিশ্বাস করতে পারে না, কারণ মানুষ ভুক্তভোগী। (বিস্তারিত…)