Posts Tagged ‘প্রশ্নপত্র ফাঁস’


লিখেছেন: ফারুক আহমেদ

Education-654শিক্ষা হঠাৎ কোন পন্ডিত বা বুদ্ধিজীবীর মস্তিষ্ক থেকে উৎসারিত বিষয় নয়। শিক্ষা কোন পন্ডিতের পান্ডিত্য দ্বারা আবিষ্কারেরও বিষয় নয়। শিক্ষা হলো গোটা মানব সমাজ কর্তৃক অর্জিত জ্ঞান ভান্ডার। শিক্ষা কিভাবে অর্জন করতে হয় এবং পরবর্তী মানব শিশুর মধ্যে কিভাবে সঞ্চারিত করতে হয়, শিশু থেকে শুরু করে পরিণত বয়সের মানুষকে পর্যন্ত কিভাবে মানব সমাজের আর্জিত জ্ঞানের সাথে পরিচিত করতে হয় তাও মানব সমাজ কর্তৃক নির্ধারিত। শ্রেণী স্বার্থের রক্ষকের দায়ীত্বপ্রাপ্ত পন্ডিতরা নানা কৌশলে বরাবরই সেই পথে বাধা হয়ে দাঁড়িয়েছে। শ্রেণী স্বার্থেও এক ধরণের শিক্ষার প্রয়োজন পড়ে। শ্রেণী স্বার্থের রক্ষক পন্ডিতবুদ্ধিজীবীরা শ্রেণী সেবক তৈরীর জন্য যতটুকু প্রয়োজন ঠিক ততটুকু শিক্ষার ব্যবস্থা করারই তত্ত্ব নির্মাণকারী। এই নির্মাণেই তাদের পান্ডিত্য এবং বুদ্ধিজীবীতা। কোন সমাজে কতটুকু শিক্ষা থাকবে, তার বৈশিষ্ট্য কেমন হবে, শিক্ষার মান কেমন হবে তা নির্ধারিত হয় সেই সমাজের শাসক শ্রেণীর শ্রেণী চরিত্রের ওপর। বাংলাদেশে শিক্ষার যে দুরবস্থা চলছে, এখানে শিক্ষাকে যেভাবে আক্রান্ত করা হয়েছে, শিক্ষাকে আক্রান্ত করতে গিয়ে শিক্ষার্থীদের যেভাবে আক্রান্ত করা হচ্ছে, সকল শিক্ষার্থী বিশেষ করে শিশুদের যেভাবে মানসিক অসততার ভয়াবহতার মধ্যে ঠেলে দেওয়া হচ্ছে তা এখানকার শাসক শ্রেণীর শ্রেণী চরিত্রেরই প্রতিফলন। (বিস্তারিত…)

Advertisements

লিখেছেন: ফারুক আহমেদ

education-business-1পরীক্ষার প্রশ্নপত্র কেমন হবে তা নির্ভর করে পাঠদানের পদ্ধতির ওপর। এখানে পাঠদানের পদ্ধতি কেমন তা বুঝতে কোন গবেষণার প্রয়োজন পড়ে না, শিক্ষা কর্তাব্যাক্তিদের কথাতেই তা বুঝা যায়।প্রশ্ন পত্র ফাঁসের অভিযোগ খন্ডাতে মন্ত্রীমহোদয় যখন বলেন “বি.সি.এস ক্যাডাররা যে সাজেশন দেন সেগুলোর বেশিরভাগই কমন পড়ে” অতএব প্রশ্নপত্র ফাঁস হওয়ার কিছু নেই! মন্ত্রী মহোদয়ের এই কথায় শিক্ষা ব্যবস্থার যে আবরণটুকু ছিল তাও খুলে পড়ে গেছে।এখন আর প্রশ্ন ফাঁসের কোন অভিযোগ সমিচীন হবে না!কারণ ল্যাংটার কাপড় ফেঁসে যাওয়ার অভিযোগ নিশ্চয়ই কেউ তুলবেন না! (বিস্তারিত…)


 

লিখেছেন: ফারুক আহমেদ

question-paper-leaksযে কোন পরীক্ষার প্রশ্নপত্র ফাঁস এখন এক সাধারণ ব্যাপারে পরিণত হয়েছে। এমন পরীক্ষা বর্তমানে অনুষ্ঠিত হতে কমই দেখা যায় প্রশ্নপত্র ফাঁসের অভিযোগ ওঠে না। অধিকাংশ ক্ষেত্রে সরকারী এবং সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ প্রশ্নপত্র ফাঁসের এসব ঘটনাকে অস্বীকার করলেও একে আড়াল করা সম্ভব হয় না। বরং অনেক ক্ষেত্রেই সরকারি কর্তৃপক্ষের এর বিপরীতে যুক্তি দ্বারা ঘটনার সত্যতাই গণমানুষের কাছে পরিষ্কার হয়। প্রশ্নপত্র ফাঁসের ঘটনা এখন এমনই এক ব্যাধিতে পরিণত হয়েছে যে,প্রাথমিক স্তর থেকে শুরু করে উচ্চ শিক্ষা পর্যন্ত সর্বস্তরে এই ব্যাধির বিস্তার। ২০১৩ সালে অনুষ্ঠিত প্রাথমিক সমাপনী পরীক্ষা এবং জুনিয়ার সমাপনী পরীক্ষার মত পরীক্ষায়ও পরীক্ষার প্রশ্নপত্র ফাঁসের অভিযোগ উঠেছে এবং কর্মকর্তাদের ব্যাখ্যায় তা জনমনে প্রতিষ্ঠিত হয়েছে।  (বিস্তারিত…)