Posts Tagged ‘পুরুষতন্ত্র’


লিখেছেন: শাহেরীন আরাফাত

সম্প্রতি ভারতের সুপ্রিম কোর্ট ঔপনিবেশিক আমলের একটি সামন্তীয় চেতনার আইনকে অসাংবিধানিক বলে খারিজ করেছেন। ওই আইনে নারীকে পুরুষের সম্পত্তি হিসেবে দেখানো হয়েছিল। ব্যক্তির স্বাভাবিক যৌন সম্পর্ককে ফৌজদারি আইনের অধীনস্ত করা হয়েছিল। তা বুর্জোয়া গণতন্ত্রের সঙ্গে সাংঘর্ষিক। আর এ কারণেই ওই আইনটি বাতিল করা হয়।

দণ্ডবিধির ৪৯৭ ধারায় ‘ব্যভিচারের’ শাস্তির বিধান রাখা হয়েছে। তাতে বলা হয়, যদি কোনো ব্যক্তি এমন কোনো নারীর সঙ্গে তার স্বামীর সম্মতি ব্যতীত যৌনসঙ্গম করেন এবং অনুরূপ যৌনসঙ্গম যদি ধর্ষণের অপরাধ না হয়, তাহলে সে ব্যক্তি ব্যভিচারের দায়ে দায়ী হবেন, যার শাস্তি পাঁচ বছর পর্যন্ত যেকোনো মেয়াদের সশ্রম বা বিনাশ্রম কারাদণ্ড, অর্থদণ্ড অথবা উভয় দণ্ড।

ব্যভিচার’ কি? প্রচলিত সংজ্ঞানুসারে, সমাজআইনের বিধিভুক্ত যে যৌন সম্পর্কের নির্দেশনা, তার বাইরে যাওয়ার মানেই হলো ‘ব্যভিচার’। একটা শব্দ যে পুরো ব্যবস্থাকে ব্যাখ্যা করতে সক্ষম, তার প্রকৃষ্ট উদাহরণ এ শব্দটিযা প্রচণ্ডভাবে নারীবিদ্বেষী, পুরুষতান্ত্রিক এবং সামন্তীয় চেতনাধীন। এর দ্বারা কার্যত নারীর যৌন স্বাধীনতাকেই অস্বীকার করা হয়। বিয়ের পর নারী তার স্বামীর বাইরে কিছু চিন্তা করতে পারবে না, এমন বাধ্যবাধকতা আরোপ করা হয়। কার্যত ওই ‘ব্যভিচারের’ জুজু দেখিয়ে নারীকে পুরুষের ‘যৌনদাসীতে’ পরিণত করা হয়। ওই ‘ব্যভিচার’এর শাস্তি দিতে যে আইন করা হয়েছে, তা কমিউনিস্ট কেন, কোনো বুর্জোয়া গণতান্ত্রিক ব্যক্তিও মেনে নেবেন না নিশ্চয়! (বিস্তারিত…)

Advertisements

লিখেছেন: সৌম্য মণ্ডল

kisssssssচা এর দোকান থেকে সংবাদ মাধ্যম, বঙ্গরাজনীতি উত্তাল, হৈ হৈ এবং ছি ছিক্কারে, কারণ গত ৫ নভেম্বর রাস্তা অবরোধ করে প্রায় ৩০০ ছাত্র ছাত্রী চুমু খেয়েছে! তাও আবার যাদবপুর থানার সামনে দাড়িয়ে! ওয়াকি টকি হাতে পুলিশ ঘেঁটে লাট, “স্যার”কে কি ভাষায় রিপোর্টিং করবে বুঝতে পারছেনা! অন্য সময় হলে না হয় “হাতে নাতে” ধরা পরা “অপরাধী” মেয়েটির বুকে খানিক হাত বুলিয়ে নেওয়া যেত অথবা যুগলের কাছ থেকে ২০০ টাকা ফাইন, অন্তত পক্ষে ধমকির ফরম্যাটে একটু জ্ঞান তো দেওয়া যেত! মানে ওই পার্কে, বা অন্ধকার গলিতে আইনের রক্ষকরা যে বঙ্গ সংস্কৃতিটা অনুশীলন করেন আর কি! (বিস্তারিত…)


hok-kolorob-321

মাননীয় সম্পাদক

এই সময়

.

গত ১৯ এবং ২০ তারিখ যথাক্রমে ‘এই সময়’ ও Times of India পত্রিকায় দেখলাম যে আমার এবং আরো কয়েকজন বন্ধুর ছবি যাদবপুর কান্ডে ‘সশস্ত্র বহিরাগত’ হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছে। এছাড়াও বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমে ‘চক্রান্তকারী মাওবাদী’ হিসেবে প্রত্যাশা মতোই সন্দেহ করা হয়েছে, যা যেকোনো গণআন্দোলনের ক্ষেত্রে করা হয়ে থাকে। নির্দিষ্ট করে বলা না হলেও বলা হয়েছে যে, আমাদের মধ্যে নাকি অনেকে প্রেসিডেন্সি কলেজে বেকার ল্যাব ভাঙচুরে অভিযুক্ত। (বিস্তারিত…)


লিখেছেন: নেসার আহমেদ

patriarchyনারীর ক্যাটাগরি ও সৌন্দর্য্য নির্মাণের একটা বিষয় মনে হয় সব সমাজেই ছিল ও আছে। খুব সংক্ষেপে যদি আমরা বিষয়বস্তুর পরে নজর দেই, তাহলে কিছু তথ্যচিত্র দাঁড় করানো যেতে পারে। প্রাচীন ভারতে বাৎস্যায়নের কামসূত্রে নারীকে তিন ক্যাটাগরিতে বিভক্ত করা হয়েছিল। মৃগী, বড়রা ও হস্তিনি। (বিস্তারিত…)


লিখেছেন: অন্বেষা বসু

art-1-ছুটি,

শুকনো পাতার মত সন্ধ্যে নামছে আমার শহরে। শীতের সন্ধ্যে। মনকেমনের সন্ধ্যে। আমার পাড়ায় এখন বিষণ্ণতার আলো। দাদা বাড়ি ফেরেনি এখনও। বাবার ঘরে রেডিও চালানো। গজল। মীর্জা গালিব।

হাজারোঁ খ্বাহিশে অ্যায়সি কি হর খ্বাহিশ পে দম নিকলে

বহুত নিকলে মেরে আরমান লেকিন ফির ভি কম নিকলে” (বিস্তারিত…)


লিখেছেন:মেহেদী হাসান

stop-violence-against-women-1-কুসংস্কার প্রবনতা, ধর্মীয় গোঁড়ামি, অজ্ঞানতা ও অসচেতনতার মানদণ্ডে আমাদের গ্রামে স্থায়ীভাবে বসবাস করা প্রায় সকল মানুষের অবস্থান অনেকটাই কাছাকাছি। তাদের চিন্তাচেতনার মধ্যেও তেমন কোন হেরফের সচারচর লক্ষ্য করা যায় না। অর্থনৈতিক দিক থেকে তারা উঁচুনিচু হলেও আর অন্যান্য সকল দিক থেকে সকলেই প্রায় একই মাপের। (বিস্তারিত…)


লিখেছেন: ধ্রুবনীল

image-2-মিজান ঝর্নার দিকে আস্তে আস্তে এগিয়ে আসছে। হাতে লম্বা একটা বেতের লাঠি। শেষ পর্যন্ত সিদ্ধান্ত হলো ঝর্নার একশোটি বেত্রাঘাত এই লাঠি দিয়েই করা হবে। আর সেটি করবে এই মাঝ বয়সী লোকটা মিজান। মিজানের বউটা মরেছে বছর খানেক আগে। জগত সংসারে তার আপন বলতে যা কিছু আছে সব ঐ বিচারকার্যের মাঝখানে বসা মুজিব কোট পরিহিত মেম্বার সাহেব। মায়া মহব্বত বলতে ওর মাঝে কিছুই নেই। চোখের সামনে হারিয়েছে সব আপনজনকে। লোকে বলে ওর বউটা নাকি গলায় দরি দিয়ে মরেছে। (বিস্তারিত…)


লিখেছেন: মনজুরুল হক

stop-violence-against-women-1-১১ বছরের কিশোরীকে জোর করে ধর্মান্তরিত করে ৫৫ দিন আটক রেখে ধর্ষণ করেছে কিছু মানুষরূপী জানোয়ার। তাকে উদ্ধার করা গেলেও ধর্ষকদের গ্রেফতার করতে পারেনি পুলিশ।

এটা হল খবর। খবরটা ছাপা হয়েছে একটি জাতীয় দৈনিকে। তারপর থেকে অনলাইনে নিরবিচ্ছন্ন প্রতিবাদ চলছে। কিন্তু এই খবরটা ছাপা হওয়ার পর স্বরাষ্ট্রমন্ত্রণালয়, স্থানীয় প্রশাসন, পুলিশ হেডকোয়ার্টার কিংবা নারী অধিকার, মানবাধিকার সংগঠনগুলো থেকে কোনো বিবৃতি বা প্রতিবাদলিপি আসেনি (অন্তত আমি দেখিনি)(বিস্তারিত…)


লিখেছেন: মনজুরুল হক

savar-disaster-12টানা ২১ দিন উদ্ধার কাজ চালানোর পর উদ্ধারকর্মীরা আনুষ্ঠানিকভাবে তাদের কাজ শেষ করলেন। সেনাবাহিনী, ফায়ার ফাইটার, সিভেল ডিফেন্স এবং সাধারণ মানুষের সম্মিলিত যে দলটি উদ্ধার কাজ চালাচ্ছিল তার সঠিক সংখ্যা আমরা জানিনা। সত্যি কথা বলতে কি কেউই জানেন না। কারণ প্রতিদিনই রানা প্লাজার ধ্বংসাবশেষ থেকে জীবিত বা মৃত শ্রমিকদের উদ্ধার কাজে নতুন নতুন মানুষ যোগ দিয়েছিলেন। যারা প্রথম দিকে কাজ শুরু করেছিলেন তারা কেউ কেউ সরে গেলেও সেখানে আরও নতুন কর্মী যোগ দিয়েছিল। (বিস্তারিত…)


লিখেছেন: মেহেদী হাসান

stop-violence-against-women-1-আমাদের এই জনপদে নারীর প্রতি সহিংসতার নিরবিচ্ছিন্ন পুনরাবৃত্তির ফলে আমরা সময়ের এমন একটা পর্যায়ে এসে পৌঁছেছি যে, এখন এগুলোকে খুব বেশী অস্বাভাবিক বলে প্রতিভাত হয় না নারীর প্রতি অধিকাংশ সহিংস ঘটনা অন্যান্য আটদশটা প্রাত্যহিক ঘটনার মত স্বাভাবিক ভাবে মেনে নেয় মানুষ। আমাদের সমাজে বহু পূর্ব হতেই নারীর প্রতি নানা ধরনের সহিংসতা চলে আসছে। নারীর প্রতি সহিংসতার উদ্ভব ঘটে সাধারনত আমাদের সমাজে বিদ্যমান বিভিন্ন ধরনের নারীপুরুষ বৈষম্য এবং ফলত সমাজের ভেতরে জায়গা করে নেয়া শক্তিশালী পুরুষতান্ত্রিকতার উপর ভর করে। এই পুরুষতান্ত্রিকতার অবস্থান শুধুমাত্র পুরুষের ভেতরে বললে পুরো সত্য উন্মোচিত হয় না, নারীপুরুষ সকলের ভেতরেই পুরুষতান্ত্রিকতা কম বেশী বিরাজমান। (বিস্তারিত…)