Posts Tagged ‘জাতি’


লিখেছেন: আহমদ জসিম

national-consciousnessইদানীং আমাদের মিডিয়াতে বিপরীতমুখী কিছু সংবাদ সব সচেতন নাগরিকেরই দৃষ্টি কেড়েছে। যেমন ধরুন, যে দিন নিউজ হলো, আমাদের মাথাপিছু গড় আয় বেড়ে ১০৮০ ডলার হয়েছে আবার সেই দিনই প্রায় পত্রিকার প্রধান শিরোনাম ছিল জীবনমৃত্যুর সন্ধিক্ষণে দাঁড়িয়ে হাজার হাজার বাংলাদেশি সমুদ্রে ভাসছে! হ্যাঁ, এইসব সমুদ্রে ভাসা মানুষগুলো জীবনজীবিকার তাগিদ অবৈধ পথে স্বদেশ ছেড়ে বিদেশে পাড়ি দিতে গিয়েছিল। নিয়তি তাদের জীবনের কঠিনতম রূপটা দেখিয়ে দিল। (বিস্তারিত…)

Advertisements

বাংলাদেশ পরিস্থিতি নয়া উদারবাদী যুগে শাসনপ্রনালী ও কথকতা” নামের প্রকাশিতব্য সংকলনের প্রবন্ধ

লিখেছেন: বখতিয়ার আহমেদ

book-cover-1[সংকলকের ভূমিকা: আমাদের সমাজে রাষ্ট্রীয় ক্ষমতার নানান অভিঘাতকে নির্মোহ দৃষ্টিতে বিশ্লেষণ করে থাকেন বখতিয়ার আহমেদ। রাবির নৃবিজ্ঞান বিভাগের এই শিক্ষক যে গরীব কৃষকশ্রমিকের টাকায় যে জ্ঞানচর্চা করেন; তা একটিবারের জন্যও ভুলে যান না। সমাজে ক্ষমতাশালী কোনো অংশের প্রতিনিধিত্ব করেন না তিনি। করেন না বলেই রাষ্ট্রআইনকানুননিও লিবারাল বাজারের আধিপত্যকে নৃবৈজ্ঞানিক অবস্থান থেকে নির্মোহ বিশ্লেষণ করতে পারেন তিনি।

বখতিয়ার আহমেদের কাছে প্রথমে লেখা চেয়েছিলাম এই সঙ্কলনের জন্য। পরে সময় বিবেচনায় নিয়ে এবং কাজের ব্যাপারে তার পারফেকশান আর ধীর গতির (দুটোই আমার কাছে ইতিবাচক। সেকারণেই তিনি যা বলেন/লেখেন তা জরুরি হয়ে ওঠে। হুটহাট বলেন না বলেই।) কথা মাথায় রেখে ফন্দি আঁটি কোনোভাবে একটি বক্তৃতা করিয়ে নেয়া যায় কিনা তাঁকে দিয়ে। (বিস্তারিত…)


লিখেছেন: রাশেদুল হক

হায়েনাদেখো ঐ রক্তচোষার দল

কেমন করছে কোলাহল,

জোঁকের মত জাতির দেহের

নিচ্ছে শুষে বল

বুকের উপর বসছে চেপে

ব্যাথায় জাতি উঠছে কেঁপে

মুখে তাহার ভাঙ্গছে ফেনা

জলের ধারা দুচোখ ছেপে ! (বিস্তারিত…)


লিখেছেন: আহমদ জসিম

বাঁশ এক প্রকারের বৃক্ষ বিশেষ, হাজার বছর ধরে এই বৃক্ষরে নানাবিধ ব্যবহার মানবকূলে বিদ্যমান। এই বাঁশ বৃক্ষ নিয়ে বাঙলা ভাষায় আছে নানা প্রকারের প্রবাদপ্রবচন। এমনই এক প্রবাদ হচ্ছে ‘বাঁশ দেওয়া’। যার সোজাসাপ্টা বাংলায় অর্থ দাঁড়ায় ‘নিদারুণ আনিষ্ট করা’। সোহেল তাজ, যিনি তাজউদ্দিনের পুত্র। আওয়ামলীগের টিকেটে গাজিপুর থেকে নির্বাচিত সংসদ সদস্য, এবং সাবেক স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী। তিনি স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রি হিসেবে দায়িত্ব পালনের ছয় মাসের মাথায় মন্ত্রীপদ থেকে পদত্যাগ করে পুরো জাতিকে এক বিস্ময় উপহার দিয়েছেন।

এই পোড়া দেশ, এই পোড়া জাতি। যে দেশের বেহায়া নির্লজ্জ শাসক শ্রেণীর নেতারা দুর্নীতি মামলায় গ্রেপ্তার হলেও বত্রিশপাটি দাঁত বের করে হাসতে হাসতে জেলে যায়। জেল থেকে বেরিয়ে দিব্যি ভুলে যায় তাদের অতীতের কথা, যে দেশের প্রধানমন্ত্রী কালো টাকা সাদা করে বলে, ‘কই আমিতো করি নাই!’ যে দেশে নেতারা ক্ষমতাকে আঁকড়ে ধরে পৈত্রিক সম্পদের মতো করে সেই দেশের একজন মন্ত্রীর পদত্যাগ সত্যিই বিরল ঘটনা বটে। সর্বশেষ তিনি পদত্যাগ করলেন তার সংসদ পদ থেকেও। পদত্যাগের ব্যাপারে তার নির্বাচনী এলাকার জনগণকে দিয়ে গেলেন একটা খোলা চিঠি। ধোঁয়াশাময় এই চিঠিতে পদত্যাগের সুনির্দিষ্ট কারণ উল্লেখ না করে বলেছে, দলদেশজাতির স্বার্থে সবকথা বলা যাবে না। (বিস্তারিত…)


লিখেছেন: অবিনাশ রায়

পতাকাটি উড়ছিল,

ছাঁদের উপর

ছেঁড়া তবুও অবিরাম উড়ছিল;

উড়ছিল বাতাসের তাড়নে,

সর্বোচ্চে ঠেলে দেয়ার কারণে।

দূষিত বাতাস, কালো আকাশ,

কলঙ্কিত সূর্য, কিরণে বজ্র,

ক্রমাগত আঘাত হানে, বানে ভাসায়, তানে ফাঁটায়;

লালসবুজের নির্জীব নিশান,

নিরব ধৈর্য্যে সহে সে বাণ।

পতাকা, দুঃখে চিরে যায় অন্তর;

দেখে, জাতের নয়, জাতির দশা। (বিস্তারিত…)