Posts Tagged ‘কবিতা’


লিখেছেন: এম.এম. হাওলাদার

.

আকাশেবাতাসে

অশুভ কানাকানি,

আঁধার ঘনিয়ে

অমঙ্গলের ধ্বনি।

.

বিবর্ণ পতাকা!

শকুনের উল্লাস!

সোনার বাংলা

অন্ধকারে গ্রাস। (বিস্তারিত…)


লিখেছেন: অয়ন চৌধুরী

.

উত্তাল সত্তরের দশক

চীনের চেয়ারম্যান আমাদের চেয়ারম্যান

লাঙ্গল যার জমি তার

গ্রাম দিয়ে শহর ঘেরাওয়ের স্বপ্ন বুকে নিয়ে

যে তরুণরা গ্রামের পথ ধরেছিল

এখনো তারা ফিরে আসেনি (বিস্তারিত…)


লিখেছেন: অয়ন চৌধুরী

naxal-3ছত্তিশগড়ের গহীন অরণ্য হতে বের হচ্ছে কয়েকটা লাশ

জাতীয় পতাকায় মোড়া দুজন নিহত পুলিশ সৈন্য,

যারা ছিল জঙ্গলের অভিশাপ

আধিবাসী নারী ধর্ষণের বীর নায়ক

হত্যা আর লুন্ঠনের অগ্রগণ্য শিরোমণি,

রাষ্ট্রযন্ত্রের ব্যবহৃত কামানের খাদ্য

ক্ষমতা কুক্ষিগত করার মানব ঢাল।

(বিস্তারিত…)


abstract_rev-6দ্বিতীয় মৃত্যু

—————————–

কোনো নষ্ট যোনির কষ্টে আমি জন্মাই রোজ।

ওরা মানুষকে কথা দেয়, শুয়োরকে কমলা লেবু।

কি করে লুকাবে ব্যবছেদে পড়ে থাকা মৃতদেহের ভিড়,

পথ আটকে ভিখারির মতো জানান দেবে শিকারির স্মৃতি।

এক একটা পতাকার তলায় মুড়ে ফেলো লক্ষ জীবন। (বিস্তারিত…)


আজ একটা কবিতা শোনাবে কমরেড!

———————————————————————————————

abstract_rev-3সূর্যের কবিতা সমুদ্রের কবিতা

নিউক্লিয়ার রিয়াক্টরের কবিতা, স্যাটেলাইটের কবিতা

মনুষত্বের মহানতম কবি!

তুমি কেন স্যাঁতস্যাঁতে অন্ধকারে কেন্নোর মতো গুটিয়ে আছো

কমরেড! তুমি তো একা ন, তুমি লক্ষ লক্ষ কমরেড!

ছোটোবেলায় একটা লাল পিঁপড়েকে বন্দি করে ছিলাম

কাঁচের বোতলে,

এখন ওর কবরের পাশে গিয়ে বসি ক্রীতদাসের নির্জন কবরে।

কবিতা শোনাবে না কমরেড, ঘুমন্ত আগ্নেয়গিরির কবিতা! (বিস্তারিত…)


১০. বিপ্লব

—————————

abstract_rev-5তখনও গোধুলির শেষ রক্তরঙটুকু ছড়ানো আকাশে

তখনও প্রকৃতি নিবিষ্ট দু’জনের আলাপনে

বিহঙ্গরা খোঁটনি ঠোঁটে ঘোর অন্ধকার

কেবল দু’চারটে তারার আকাশ বাগানে পুষ্পরূপ ফোঁটা

সামনের কদুলির ডগাগুলো নড়ছে

পাতাগুলো ঘনকালো

.

আপনি রাষ্ট্র ও বিশ্বাস প্রসংঙ্গে বলেছেন খানিকটা (বিস্তারিত…)


religion-discourse

অন্তিমের আনন্দধ্বনি’ শীর্ষক কাব্যসংকলনটি এখানে ধারাবাহিকভাবে প্রকাশিত হচ্ছে। আজ প্রকাশিত হলো তার দ্বিতীয় কিস্তি।

.

০৪. রাজনীতি

——————————–

শতবছরের রাজনীতির ফলেনি ফসল এই ভূখণ্ডে

কেবল ভুলের স্তুপ,জঞ্জাল সিদ্ধান্তের

তবে কেন এত বলিদান মানুষের?

শতভাগ শতনামে শত মতের ক্ষুদ্রঅনুকণা

নয় কি ভুল অপরিমেয় ক্ষতির হিসাব?

আর্থহীন মোহান্ধতা,এক উগ্রতার দলিল অযাথা

শ্লোগান সমঅধিকার,

সাম্যসুন্দর ভোঁজবাজির সম্মোহন দোধারী তরবারি

ক্ষমতারলোভ একধারা শ্রেণীর চলমান বৈপরীত্য সর্বহারার,

নয় কি আরেক স্বৈরাচার রূপে? (বিস্তারিত…)


From the Russian Revolution

লিখেছেন: টিপু সুলতান

()

তোমরা একে একে মরে যেতে পারো,

তোমাদের শবযাত্রার সঙ্গী হবে যারা

তারাও এক এক করে মরে যাক।

তোমাদের যত দেহ পৃথিবীর

ফাঁকেফাঁকে গুঁজে দিয়ে ফিরে আসতে

আমি পারি। (বিস্তারিত…)


অন্তিমের আনন্দধ্বনি’ শীর্ষক কাব্য-সংকলনটি এখানে ধারাবাহিকভাবে প্রকাশিত হচ্ছে। আজ প্রকাশিত হলো তার প্রথম কিস্তি।

অন্তিমের আনন্দধ্বনি

অন্তিমের আনন্দধ্বনি

. প্রথম প্রভাতে

——————————————-

প্রথম প্রভাত, পাখিদের কলোকাকলির সুরেলা আলাপ

পায়ের আওয়াজ নাস্তার টেবিলে টুংটাং তস্তুরী প্লেটের ঠন ঠন

জায়নামাজ, কয়টা সংবাদপত্র হেডলাইন স্পষ্ট

তসবির দানাগুলো উপর আর নিচয়ে আঙুলের গতি

চোখ সংবাদপত্রের মুখে

ছোট্টসংবাদ

সঙ্গহীন এক মানুষের অন্তিম জীবন কথা

খশ খশ শব্দ সে কি পাখার আওয়াজ? (বিস্তারিত…)


লিখেছেন: মতিন বৈরাগী

matin-bairagi-10কবিতা এমনই এক বিষয় যে নিজেকে প্রস্তুত করে প্রকাশে এবং সেই প্রকাশের মধ্যদিয়ে পাঠক কবিকে চিনে নিতে পারেন একজন মানুষকেও যার সামাজিক অস্তিত্ব আছে, এবং অস্তিত্বমান সমাজে সে কোনো ধ্যানধারণাকে বহন করে তার মুখ খুলে দেয়। প্রত্যেক শিল্পই রাজনৈতিক দর্শন ভূক্ত এবং কোনো না কোনো শ্রেণীর প্রতিনিধিত্ব করে। সে যদি নিজকে গোপন ও করতে চায় তা হলেও সে প্রকাশ্য হয়ে পড়ে এবং তার প্রকাশরীতি সব সময়ই তার ধ্যানজ্ঞান পছন্দ ও ভাবনায় বাহিত হয়ে রূপলাভ করে শিল্পের মাধ্যমে, যাকে শিল্পী কোনো ভাবেই আড়াল করতে পারে না। আর কবিতাতে তো সম্ভবই নয়, দুরূহ বা দুর্ভেদ্য যাই হোক সে চিনিয়ে দেয় কবিকে, আখেরে সে কোন সামাজিক চেতনা ধারণ করছে এবং কাদের পক্ষের মানুষ হয়ে তার সৃষ্টিকে নিবেদিত করতে চাইছে। (বিস্তারিত…)