Posts Tagged ‘আওয়ামী লীগ’


লিখেছেন: ফারুক আহমেদ

may-day-1জনগণের সামনে রাজনৈতিক নেতৃত্বের অনুপস্থিতির কারণে ১৯৭১ সালের জনগণের মুক্তিযুদ্ধকে আওয়ামীলীগ দখল করে নিতে পেরেছিল। জনস্বার্থবিরোধী একটি রাজনৈতিক দল যখন মুক্তিযুদ্ধের নেতৃত্বদানকারী হিসেবে প্রতিষ্ঠিত হতে পারে তখন তারা জনগণের গণতান্ত্রিক কেন্দ্রগুলো দখল এবং নিয়ন্ত্রণ করবে এটাই স্বাভাবিক। বাংলাদেশে তাই ঘটে চেলেছে। স্বাধীনতার পর থেকে জনগণের এবং শ্রমিককৃষক মেহনতি জনতার সংগ্রামের দিনগুলোকে আওয়ামীলীগ এবং পরবর্তীতে তার শেকড় থেকে তৈরী শাসকশ্রেণীর দলগুলো দখল এবং নিয়ন্ত্রণ করে চলেছে। এইসব দিবসগুলোকে জনগণের লড়াই সংগ্রামের দিবস থেকে জনগণকেই জনস্বার্থের বিরূদ্ধে দাঁড় করিয়ে দেওয়ার দিবসে পরিণত করেছে। স্বাধীনতার পর থেকে মে দিবসকে দখল এবং নিয়ন্ত্রণের মাধ্যমে বর্তমানে এমন এক পর্যায়ে নিয়ে দাঁড় করানো হয়েছে যে, গোটা বিশ্বের শ্রমজীবী জনগণের মুক্তির শপথ গ্রহণের এই দিনটিকে শ্রমজীবী মানুষদের দ্বারাই শ্রমজীবী জনগণের বিরূদ্ধে ব্যান্ড বাজিয়ে আনন্দ করার দিবসে পরিণত করেছে। বাংলাদেশে মে দিবসের চিত্র দেখলে এখন তাই দেখা যায়। (বিস্তারিত…)

Advertisements

১৪ মার্চ ২০১৫, বেলা ১১টা,

কমরেড নির্মল সেন মিলনায়তন,

২৩/, তোপখানা, ঢাকা১০০০।

প্রিয় সাংবাদিক বন্ধুগণ,

আমাদের সংগ্রামী শুভেচ্ছা গ্রহণ করুন। আমরা এমন এক সময় আপনাদের সামনে হাজির হয়েছি যখন দীর্ঘ ৬৮ দিন জুড়ে আওয়ামী ও বিএনপি জোটের সংঘাতহানাহানিতে জনজীবন বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে। বিএনপি নেত্রীর গতকালের সংবাদ সম্মেলন এবং আওয়ামীলীগ নেতা মোহম্মদ হানিফের প্রতিক্রিয়া থেকে এটা স্পষ্ট হয়েছে যে, এ দুই জোট যার যার অবস্থানে অনড় রয়েছে এবং এ গণবিরোধী রক্তাক্ত সংঘাত তারা চালিয়ে যেতে প্রস্তুত।

gn2আপনারা জানেন, এ পর্যন্ত আওয়ামী জোটের রাষ্ট্রীয় সন্ত্রাস এবং বিএনপিজামাত জোটের পেট্রোল বোমা সন্ত্রাসে ১২১ জন হত্যার শিকার হয়েছে। এসব সন্ত্রাসে হাজার হাজার মানুষ আহত এবং ১৩৭৫টি যানবাহন ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগের শিকার হয়েছে। কেবল তাই নয়, অর্থনৈতিক কর্মকান্ডে স্থবিরতা এবং যাতায়াতের সমস্যার কারণে শ্রমজীবী মানুষের কর্মহীনতা ব্যাপকভাবে বৃদ্ধি পেয়েছে। অবরোধের অজুহাতে কারখানা মালিকরা শ্রমিকদের বেতন পরিশোধ করছে না। কৃষিপণ্যের বাজারজাতকরণ বাধাগ্রস্থ হওয়ায় কৃষক উৎপাদন খরচটুকু পর্যন্ত ওঠাতে পারছেনা। এসএসসি পরীক্ষার্থীসহ ৪ কোটি ৭৪ লাখ শিক্ষার্থীর শিক্ষা জীবন আজ বিপর্যস্ত। সমগ্র অর্থনৈতিক ক্ষতির পরিমাণ দাঁড়িয়েছে লক্ষ কোটি টাকা। সর্বোপরি গুম, ক্রস ফায়ার, গ্রেফতার বাণিজ্য, দলীয় নির্যাতন, পুলিশি নির্যাতন, পেট্রোল বোমা, ককটেল ইত্যাদির কারণে এক ত্রাসের রাজত্ব কায়েম হয়েছে। জনগণ আজ চরম নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন। (বিস্তারিত…)


লিখেছেন: অনুপ কুণ্ডু

মুজাহিদুল ইসলাম সেলিমএর লেখার প্রতিক্রিয়া

mujahidul-islam-selim-cpbআগষ্ট২০১৪ এর শুরু দিকে দৈনিক ইত্তেফাক পত্রিকায় “জনতার মৃত্যু নেই, তাই মৃত্যু নেই বঙ্গবন্ধুরও” এবং “দেশকালজনতা ও বঙ্গবন্ধু” দুটি লেখা প্রকাশিত হয়। লেখক বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টির সভাপতি ও স্বাধীনতা পরবর্তী সময়ের প্রখ্যাত ছাত্রনেতা মুজাহিদুল ইসলাম সেলিম। লেখা দুটি পড়ে আমার মনে কিছু প্রশ্ন জেগেছে। কমিউনিস্ট আন্দোলনের একজন নগন্য কর্মী হিসেবে প্রশ্নসমূহ উত্থাপন ও তার ব্যাখ্যা জানা জরুরী হয়ে দেখা দিয়েছে। প্রথমেই আমার জিজ্ঞাসা একজন কমিউনিস্ট পার্টির নেতা কিভাবে ‘জাতির জনক’ অভিধার প্রতি আকৃষ্ট হতে পারেন? তাও আবার “বঙ্গবন্ধু” আর এই বঙ্গবন্ধু” উপাধি ঘোষণা করেছিলেন কারা? নিশ্চয়ই সেলিম ভাই তা জানেন। ছাত্রলীগের একটি সমাবেশ থেকে তারা তাদের নেতাকে যে কোন ভূষণে ভূষিত করতে পারে। কোন মাপকাঠিতে এই অভীধা সমগ্র জনগোষ্ঠীর অলঙ্কার হিসেবে সম্পৃক্ত হয়? (বিস্তারিত…)


লিখেছেন: ফারুক আহমেদ

ak-khandokar-bookমুক্তিযুদ্ধের উপসর্বাধিনায়ক এয়ার ভাইস মার্শাল আব্দুল করিম খন্দকারের লেখা বই ১৯৭১ : ভেতরে বাইরেনিয়ে অনেকেই লিখেছেন। এর মধ্যে আওয়ামী লীগ এবং আওয়ামী লীগের ক্ষমতার কৃপাপ্রার্থীদের লেখার মধ্যে কোন যুক্তি না থাকলেও আওয়াজ অনেক বড়। কিন্তু তর্জনগর্জনের মধ্যে সবকিছু চাপা পড়ে যায় না। প্রশ্নকে উপেক্ষাও করা যায় না, স্থায়ীভাবে দাবিয়েও রাখা যায় না। বাংলাদেশের মানুষের অধিকার প্রতিষ্ঠার দীর্ঘ লড়াইসংগ্রামে ১৯৭১ সালে মুক্তির জন্য মানুষের লড়াই বিরাট ঘটনা। ঘটনা যত বড় হয় তাকে পুঙ্খানুপুঙ্খরূপে জানার আগ্রহও মানুষের ততই গভীরহয়। জানা এমন এক বিষয় যে, ক্ষমতাবানরা যা জানাবেন তাকেই পূর্ণ জ্ঞান করা যায় না। জানা পূর্ণতা পায় প্রশ্নের মধ্যদিয়ে প্রাপ্ত উত্তর থেকে। ১৯৭১ এর মুক্তিযুদ্ধ বাংলাদেশের মানুষের শোষণমুক্তির লড়াইয়ের মাইলফলক। তাই মুক্তিযুদ্ধ নিয়ে প্রশ্ন মানুষের সামনে বার বার আসতেইথাকবে। মুক্তিযুদ্ধে মানুষের ভুমিকা কি ছিল, পরবর্তীতে যারা ক্ষমতাসীন হয়েছিলতাদের ভুমিকা কি ছিল, নের্তৃত্বের ভুমিকা কি ছিল, যুদ্ধের পরিকল্পনা কি ছিল এরকম অনেক প্রশ্ন মানুষের সামনে আসছে এবং আসবে। সেসব প্রশ্নের উত্তর মানুষ খুঁজতেই থাকবেন। এদেশের মানুষ একটি বুঝ থেকে মুক্তিযুদ্ধ করেছিলেন। মানুষের সংগ্রামের কেন্দ্রীকতার জন্য, দিক নির্দেশনার জন্য নের্তৃত্বের প্রয়োজন পড়ে। মানুষের বুঝ এবং চাওয়ার সাথে মিলে যাওয়ার শর্তে মানুষ নের্তৃত্বের উপর আস্থা রাখেন। মানুষ যেমন নের্তৃত্বের উপর আস্থা রাখেন তেমনই নের্তৃত্বেরও দায় থাকে। ১৯৭১ সালেরমুক্তি যুদ্ধে মানুষ যেসব নের্তৃত্বের উপর আস্থা রেখেছিলেন সেসব নের্তৃত্ব মানুষেরআস্থার দায় কিভাবে মিটিয়েছিলেন এ প্রশ্ন উঠতেই থাকবে। (বিস্তারিত…)


লিখেছেন: বখতিয়ার আহমেদ

ru-movement-21ক্যাম্পাস পরিস্থিতি গত দুইদিন স্নায়ুতন্ত্রে এমন চাপ সৃষ্টি করে রেখেছিল যে কাজকর্ম লাটে উঠেছিল। নিজের অফিসে ঢুকতে পারছিলাম না বিকেলের আগে, ধর্মঘটের জন্য ছাত্ররা ভবন তালা মেরে রাখছে সকালবেলা। কাজ সামলাতে পরশু রাত জেগেছি, সকালে উঠেছি দেরিতে।

সাড়ে এগারোটার দিকে ফোকলোর বিভাগের সুস্মিতা চক্রবর্তীর ফোনে জানলাম আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের উপর হামলা হয়েছে। আশংকা আগেই ছিল, তারপরেও সাথে কোথাও বোধহয় আশাও ছিল, হাজার হাজার ছাত্র তো গত কয়দিনের আন্দোলনে ক্যাম্পাসের একটা পাতাও ছেড়েনি। মারবে কোন অজুহাতে? (বিস্তারিত…)


লিখেছেন: বাধন অধিকারী

ru-movement-17রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে সান্ধ্যকালিন বাণিজ্যিক মাস্টার্স কোর্স এবং বর্ধিত বেতনভাতা প্রত্যাহারের দাবিতে চলা আন্দোলনকে বরাবরের মতোই দমননীতির মধ্য দিয়ে মীমাংসার সিদ্ধান্ত নিয়েছে মিনি রাষ্ট্র বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। শনিবার রাতের আঁধারে অপারেশন সার্চ লাইটের কায়দার হানাদার রাষ্ট্রীয় সন্ত্রাসী বাহিনী পুলিশ আর আজকের রাজাকার বাহিনী (শিক্ষার্থীদের সঙ্গে বেঈমানীর কারণে বলছি) ছাত্রলীগের সমন্বয়ে শিক্ষার্থীদের হলে রেইড, আন্দোলনকারীদের মানসিক নির্যাতন, হুমকি, সবই সম্পন্ন হয়েছে রাতের আঁধারে। (বিস্তারিত…)


তারিখঃ ২৭শে ডিসেম্বর, ২০১৩

election-2013ভারতআমেরিকার মদদে আওয়ামী ও বিএনপি জোট আজ দেশব্যপী ‘গদী’ দখলের রক্তাক্ষয়ী সংঘাতে নেমেছে। সম্পদশালী হবার লোভে একদিকে যেমন এরা বহিঃশক্তির পদলেহন করছে, অন্যদিকে দেশের অভ্যন্তরে মারামারিকাটাকাটি করে জনজীবন বিপন্ন করে তুলেছে। সাধারণ মানুষ আজ ঘরেবাইরে কোথাও নিরাপদ নয়। আজ বাসে পেট্রোল বোমা খেয়ে মরছে নয়ত কাল ককটেল বোমায়। (বিস্তারিত…)


লিখেছেন: আবিদুল ইসলাম

muntasir-mamun-1গত ২০ ডিসেম্বর শুক্রবার বিকেলে চট্টগ্রাম কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে ‘সাম্প্রদায়িকতাবিরোধী গণসম্মিলনে’ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইতিহাসের শিক্ষক এবং ঘাতকদালাল নির্মূল কমিটির সহসভাপতি মুনতাসীর মামুন বলেছেন, “আমাদের এখনি সিদ্ধান্ত নিতে হবে, এ দেশে কারা রাজনীতি করবেপাকিস্তানি না বাঙালিরা। বাংলাদেশে বাঙালি ছাড়া আর কারো রাজনীতি করার অধিকার নেই।” সম্মেলনে জামায়াতে ইসলামীর পাশাপাশি বিএনপির রাজনীতিও নিষিদ্ধের দাবি তুলেছেন তিনি। (বিস্তারিত…)


লিখেছেন: বাধন অধিকারী

farhad-mazhar-6একুশে টেলিভিশনের এক টক শোতে ফরহাদ মজহারের গণমাধ্যম সংক্রান্ত বক্তব্য এই লেখার প্রেরণা। কদিন আগে ‘একুশের রাত’ নামের ওই আলোচনায়, একাত্তর টেলিভিশনে পিকেটারদের হামলার প্রেক্ষাপটে সঞ্চালক আলাপ তুললে, রাজনীতিক কাজী ফিরোজ রশীদ এবং চিন্তক ফরহাদ মজহার এ নিয়ে নিজেদের অবস্থান জানান। কাজী ফিরোজ, হামলার বিরোধীতা করে সঞ্চালককে উদ্দেশ্য করে বলেন, তাদের মানে গণমাধ্যম সংশ্লিষ্টদের দায়িত্বশীল হতে হবে আরও। একপক্ষীয় অবস্থান নেয়া যাবে না। নাহলে হামলার ঘটনা এড়ানো যাবে না। অন্যদিকে ফরহাদ মজহারের কিছু সুনির্দিষ্ট গুরুত্বপূর্ণ অভিযোগ ছিলো গণমাধ্যমের বিরুদ্ধে। (বিস্তারিত…)


লিখেছেন: বাধন অধিকারী

red-telephone-3শাহদীন মালিক আমার খুব প্রিয় মানুষদের একজন। প্রথাগত একজন আ্নিজ্ঞ হয়েও ভিন্নভাবে ভাবতে পারেন তিনি। আমার মনে আছে; সেনাকর্পোরেট কর্তৃত্বের জরুরি ক্ষমতার সরকারের সময় বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্রবিক্ষোভের প্রেক্ষাপটে একপর্যায়ে নিম্ন আদালত রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের চার শিক্ষকের দণ্ডাদেশ দিলে তিনি এক অসাধারণ প্রতিক্রিয়া জানিয়েছিলেন এক জাতীয় দৈনিকে। লেখার শিরোনাম দিয়েছিলেন “ন্যায়বিচার হয়নি”। স্বীকৃত বুদ্ধিজীবীদের মধ্যে র্যাব প্রশ্নে কঠোর অবস্থান যাদের; শাহদীন মালিক তাদের অগ্রগণ্য। অনেক লেখাতেই সীমানা ভেঙেছেন তিনি। (বিস্তারিত…)