Posts Tagged ‘আইন’


লিখেছেন: আব্দুল্লাহ আল শামছ বিল্লাহ

justice-3বিচারব্যবস্থার প্রথমদিকে উকিল বলে কিছু ছিল না। নিজেদের বক্তব্য নিজেদেরই বিচারককে জানাতে হতো। কিন্তু আইন যখন জটিলরূপ নিতে শুরু করল, সাধারণের পক্ষে তা ভালোভাবে বোঝা এবং বলা আর সম্ভবপর হলো না তখন প্রয়োজন হলো এই উকিলদের। তথাকথিত এই ওকাতি পেশার উদ্ভব সম্ভবত প্রথম হয় গ্রীস ও রোমে আনুমানিক ২০০ খ্রিস্টপূর্বাব্দে। এই সময়ে এদের সম্মানের চোখে দেখা হতো না। রোম সাম্রাজ্যের শেষের দিকে এরা নিজেদের গুণে সমাজে প্রতিষ্ঠা লাভ করে। বর্তমানে আবার এই পেশাটি আগের রূপে ফিরে গেছে। (বিস্তারিত…)

Advertisements

বাংলাদেশ পরিস্থিতি নয়া উদারবাদী যুগে শাসনপ্রনালী ও কথকতা” নামের প্রকাশিতব্য সংকলনের প্রবন্ধ

লিখেছেন: বখতিয়ার আহমেদ

book-cover-1[সংকলকের ভূমিকা: আমাদের সমাজে রাষ্ট্রীয় ক্ষমতার নানান অভিঘাতকে নির্মোহ দৃষ্টিতে বিশ্লেষণ করে থাকেন বখতিয়ার আহমেদ। রাবির নৃবিজ্ঞান বিভাগের এই শিক্ষক যে গরীব কৃষকশ্রমিকের টাকায় যে জ্ঞানচর্চা করেন; তা একটিবারের জন্যও ভুলে যান না। সমাজে ক্ষমতাশালী কোনো অংশের প্রতিনিধিত্ব করেন না তিনি। করেন না বলেই রাষ্ট্রআইনকানুননিও লিবারাল বাজারের আধিপত্যকে নৃবৈজ্ঞানিক অবস্থান থেকে নির্মোহ বিশ্লেষণ করতে পারেন তিনি।

বখতিয়ার আহমেদের কাছে প্রথমে লেখা চেয়েছিলাম এই সঙ্কলনের জন্য। পরে সময় বিবেচনায় নিয়ে এবং কাজের ব্যাপারে তার পারফেকশান আর ধীর গতির (দুটোই আমার কাছে ইতিবাচক। সেকারণেই তিনি যা বলেন/লেখেন তা জরুরি হয়ে ওঠে। হুটহাট বলেন না বলেই।) কথা মাথায় রেখে ফন্দি আঁটি কোনোভাবে একটি বক্তৃতা করিয়ে নেয়া যায় কিনা তাঁকে দিয়ে। (বিস্তারিত…)


লিখেছেন: শওকত রিপন

জাতি হিসেবে আমরা বরাবরই ছিদ্রান্বেষী। অন্যের দোষত্রুটিখুঁত খুঁজে বেড়াতে সময়ের অন্ত নাই। নিজের দোষ তো খুঁজিই না তাই খুঁজে পাবার আশা বাতুলতা। কার্যকারণে যদি কখনো কোন দোষ ধরা পড়ে যায় তবে ব্যাস্ত হয়ে পড়ি সেটা অন্য কারো ঘাড়ে চাপানোর জন্য। বাংলাদেশে এই মূহুর্তে যে অশনি সঙ্কেত বেজে চলেছে,ঘরে ঘরে আহাজারী আর দুর্দশা বেড়েই চলেছেতার জন্য কাকে দোষ দিতে গিয়ে কার কোপানলে পড়ি তা নিশ্চিত করে বলা যায় না। (বিস্তারিত…)