কমরেড সত্য মৈত্র স্মরণে শোকসভা অনুষ্ঠিত

Posted: মে 23, 2018 in দেশ
ট্যাগসমূহ:, , ,

লিখেছেন: অনুপ কুণ্ডু

পূর্ণ হলো না তাঁর ‘সেঞ্চুরি’, অর্থাৎ শতবর্ষ পদার্পণের তীব্র আকাঙ্ক্ষা। শোষণবৈষম্যহীন সমাজ ব্যবস্থা, শ্রমিকশ্রেণীর রাষ্ট্র কায়েমের আকাঙ্ক্ষা বাস্তবায়নে অপূর্ণতার মতো। ৯৬ পার করে ৯৭ বছর বয়সে পদার্পণ করেই জীবনের দীপটি ধপ করে নিভে গেল। অবসান হলো এক জীবন্ত ইতিহাসের। বর্ণাঢ্য এক সংগ্রামী, আপোষহীন বিপ্লবী চরিত্র রণাঙ্গনের মঞ্চ থেকে প্রস্থান করলেন। ৮ এপ্রিল ২০১৮, রাত সাড়ে ১০টায় প্রস্থান করেন ত্রিকালদর্শী বিপ্লবী কমরেড সত্য মৈত্র। পরিবার প্রদত্ত এটা তাঁর পরিচিতির স্মারক হলেও রাজনীতির ময়দানে তিনি ‘মোমিন ভাই’ নামেই সমধিক পরিচিত।

গত কয়েক বছর তিনি মগবাজারের ঢাকা কমিউনিটি মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন। ১১ এপ্রিল সকাল ১১ টায় তাঁর মরদেহ কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে সকলের শ্রদ্ধা জানানোর জন্য রাখা হয়। বিভিন্ন রাজনৈতিক দল, ছাত্র, শ্রমিক, কৃষক,সাংস্কৃতিক সংগঠনের নেতাকর্মী ও বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গ ফুলেল শুভেচ্ছা জ্ঞাপন করে চিরবিদায় জানান এই প্রবীণ কমরেডকে। লাল পতাকায় আবৃত তাঁর মরদেহ সামনে রেখে কমিউনিস্ট ইন্টারন্যাশনাল পরিবেশনের মাধ্যমে তাঁর প্রতি শেষ শ্রদ্ধা প্রদর্শন করা হয়। তাঁর অপূর্ণ কাজ সম্পাদনের শপথ নেন উপস্থিত সকলে। শ্রদ্ধা প্রদর্শন শেষে তাঁর মরদেহ মেডিকেল শিক্ষার জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজের এনাটমি বিভাগে দান করা হয়।

প্রকৌশলী শেখ মোহাম্মদ শহীদুল্লাহকে আহবায়ক করে বিভিন্ন বামপন্থী দলের সমন্বয়ে গঠিত হয় ‘কমরেড সত্য মৈত্র শোকসভা জাতীয় কমিটি’। সাম্রাজ্যবাদী গোষ্ঠীর পদলেহী লুটেরা শাসকগোষ্ঠীর রাষ্ট্রব্যবস্থা উচ্ছেদ করে জনগণতান্ত্রিক রাষ্ট্র ও সরকার প্রতিষ্ঠার দৃঢ় প্রত্যয় ব্যক্ত করে ব্রিটিশবিরোধী আন্দোলনের সক্রিয় সংগঠক, আজীবন বিপ্লবী, বাংলাদেশের ইউনাইটেড কমিউনিস্ট লীগের নেতা কমরেড সত্য মৈত্র’র শোকসভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। ১১মে বিকেল ৪টায় তোপখানা রোডের বাংলাদেশ মেডিকেল এসোসিয়েশন (বিএমএ) মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত শোকসভায় সভায় সভাপতিত্ব করেন ‘কমরেড সত্য মৈত্র শোকসভা জাতীয় কমিটি’র সদস্য সচিব, বাংলাদেশের ইউনাইটেড কমিউনিস্ট লীগের সাধারণ সম্পাদক মোশাররফ হোসেন নান্নু। কমরেড সত্য মৈত্র’র সংক্ষিপ্ত জীবনালেখ্য উপস্থাপন করেন মফিজুর রহমান। বক্তব্য রাখেন কমিউনিস্ট লীগ সম্পাদকমণ্ডলীর সদস্য আজিজুর রহমান, সিপিবি সভাপতি মুজাহিদুল ইসলাম সেলিম, বাসদ সাধারণ সম্পাদক খালেকুজ্জামান, বাসদ(মার্ক্সবাদী) সাধারণ সম্পাদক মুবিনুল হায়দার চৌধুরী, তেলগ্যাসখনিজ সম্পদ ও বিদ্যুৎ বন্দর রক্ষা জাতীয় কমিটির সদস্য সচিব অধ্যাপক আনু মুহাম্মদ, লেখক গবেষক নূর মোহাম্মদ, সাংস্কৃতিক সংগঠক মহসিন শস্ত্রপানি, বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক সাইফুল হক, জাতীয় মুক্তি কাউন্সিলের সাধারণ সম্পাদক ফয়জুল হাকিম লালা, গণসংহতি আন্দোলনের প্রধান সমন্বয়কারী জোনায়েদ সাকি, গণতান্ত্রিক বিপ্লবী পার্টির সাধারণ সম্পাদক মোশরেফা মিশু, সমাজতান্ত্রিক আন্দোলনের আহবায়ক হামিদুল হক, বিপ্লবী ছাত্র মৈত্রীর প্রতিষ্ঠাকালীন সহসভাপতি মোল্লা হারুন রশীদ, বাংলাদেশ কৃষক খেতমজুর সমিতির সভাপতি রণজিৎ চট্টোপাধ্যায়, জাতীয় গণতান্ত্রিক শ্রমিক ফেডারেশনের আহবায়ক শামীম ইমাম,বিপ্লবী ছাত্র মৈত্রীর সভাপতি ইকবাল কবীর, গুলবদন্নেছা মনিকা, ইসমত আরা রীতা, সাহানা আফজা (বুলু) প্রমুখ। সভা সঞ্চালনা করেন নজরুল ইসলাম।উল্লেখ্য, শোকসভা জাতীয় কমিটির আহবায়ক শেখ মোহাম্মদ শহীদুল্লাহ অসুস্থতাজনিত কারণে সভায় উপস্থিত থাকতে পারেননি। সঙ্গতকারণে কমিটির সদস্য সচিব মোশাররফ হোসেন নান্নু সভায় সভাপতিত্ব করেন। সভাপতির বক্তব্যে মোশাররফ হোসেন নান্নু অংশগ্রহণকারী সকল রাজনৈতিক দলের নেতা কর্মী, শুভানুধ্যায়ী, বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গকে ধন্যবাদ জানিয়েছে, কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন। এছাড়া কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন কমিউনিটি হাসপাতালের প্রধান ডা. কামরুজ্জামানসহ চিকিৎসা ও সেবাশুশ্রূষায় নিয়োজিত প্রত্যেক চিকিৎসক, নার্স ও কর্মকর্তা কর্মচারীদের।

সভায় বক্তারা বলেন, ব্রিটিশ, পাকিস্তান ও বাংলাদেশ তিন আমলে শ্রমিক, কৃষক, মেহনতি মানুষের মুক্তি সংগ্রামে সত্য মৈত্র’র ভূমিকা ছিল অসামান্য গুরুত্ববহ। মার্ক্সবাদী রাজনীতিতে তিনি আপোষহীন অবস্থান বজায় রেখে আমৃত্যু লড়াই করেছেন। ব্যক্তিগত চাওয়াপাওয়া সংবরণ করে, ব্যক্তি জীবনের উন্নতি, এককভাবে ভালো থাকাকে তিনি কখনওই প্রশ্রয় দেননি। সামগ্রিকভাবে সমগ্র জনগোষ্ঠীর ভালো থাকা, সুন্দর থাকাকেই তিনি অগ্রাধিকার দিতেন। আন্দোলন সংগ্রাম ব্যতিরেকে যা অর্জন করা অসম্ভব।

বক্তারা আর বলেন, জীবনযাপন কিংবা রাজনীতির ক্ষেত্রে সত্য মৈত্র কখন হতাশ হননি। ৫২’র ভাষা আন্দোলন, ৬২’র শিক্ষা আন্দোলন, ৬৯’র গণ অভ্যুত্থান, ৭১’র স্বাধীনতা সংগ্রাম এমনকি ৯০’র স্বৈরচারবিরোধী আন্দোলন, সাম্প্রতিককালের সম্পদ রক্ষা আন্দোলনে বামপন্থী কমিউনিস্টদের ভুমিকা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। বামপন্থী কমিউনিস্টদের ইতিহাস শুধু ব্যর্থতার ইতিহাস নয়। সত্য মৈত্র নিজেই বামপন্থী কমিউনিস্টদের একটা বড় অর্জন। আমাদের প্রয়োজনে, আমাদের এগিয়ে যাওয়ার জন্য কমরেড সত্য মৈত্রকে স্মরণে রাখতে হবে।।

Advertisements

মতামত জানান...

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out /  পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out /  পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out /  পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out /  পরিবর্তন )

w

Connecting to %s

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.