প্রেস বিজ্ঞপ্তি :: মানব পাচারের বিরুদ্ধে গণ-অধিকার সংগ্রাম কমিটির সমাবেশ

Posted: মে 23, 2015 in দেশ
ট্যাগসমূহ:, ,

২২ মে ২০১৫

বিদেশে পাঠানোর নামে নব্যদাস ও পণবাণিজ্যের ঘটনার জাতীয় ও আন্তর্জাতিক তদন্তসহ পাচারচক্রের বিশেষ ট্রাইব্যুনালে বিচার ও শাস্তিসহ সকল সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত করার দাবী”

Human-Trafficking-11আজ ২২ শে মে ২০১৫ সকাল ১০ টায়, জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে “সাগরে ভাসমান বন্দী ও নিখোঁজ পাচারকৃত শ্রমিকদের অবলিম্বে উদ্ধার এবং পাচারকারীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবীতে গণঅধকিার সংগ্রাম কমিটি বিক্ষোভ সমাবশে ও মিছিল করেছে।

গণঅধিকার সংগ্রাম কমিটির আহ্বায়ক নিজাম উদ্দিন স্বপনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় বক্তারা সরকারের এ নিষ্ক্রিয়তার তীব্র নিন্দা জানিয়ে বলেন, গত ১৫ দিনে সরকারের বিভিন্ন মন্ত্রণালয় এসব পাচারকৃত মানুষদের উদ্ধার করার জরুরী ব্যবস্থা না নিয়ে একে অপরের উপর দায় চাপিয়ে পিংপং খেলায় মেতে থেকেছে। এখনও পর্যন্ত পাচারকৃত শ্রমিকদের উদ্ধার, ফিরিয়ে আনা ও পুনর্বাসনের বিষয়ে সরকারের জরুরী ও শক্তিশালী কোন পদক্ষেপ দেখা যাচ্ছে না।

জাতীয় গণতান্ত্রিক গণমঞ্চের আহ্বায়ক মাসুদ খান বলেন সংবাদ মাধ্যমে প্রকাশতি তথ্যে একথা স্পষ্ট যে দেশের কোস্টর্গাড, বিজিবি, পুলিশ, প্রশাসন, শাসক শ্রেণীর রাজনৈতিক গোষ্ঠীর প্রত্যক্ষপরোক্ষ মদদে এ নব্য দাস ব্যবসা পরিচালিত হচ্ছে। এর সাথে যুক্ত রয়েছে আর্ন্তজাতিক পাচারচক্র। মালয়েশিয়া, থাইল্যান্ড, ইন্দোনেশিয়ার মত দেশগুলোর সাম্রাজ্যবাদের দালাল শাসকশোষক শ্রেণী যে “চকচকে উন্নয়ন”এর মডেল গড়েছেতার পেছনেও রয়েছেএ জঘন্য দাস শ্রম।

শ্রমজীবী সংঘের সাংগঠনিক সম্পাদক রুবেল সিকদার এ ভয়ঙ্কর বর্বরতার উল্লেখ করে দেশীয় ও আর্ন্তজাতিকভাবে বিশেষ কমশিন ও ট্রাইব্যুনাল গঠন করে এ গণহত্যা, মানবতাবিরোধী অপরাধের তদন্ত ও বিচারের দাবী করেন। তিনি আরো বলেন, পাচারকারীদের ক্রসফায়ার দিয়ে প্রমাণ নষ্ট আর জনগণরে চোখে ধুলা দেয়ার চেষ্টা করছে সরকার। অবলিম্বে এ ক্রসফায়ার বন্ধ করতে হবে এবং দেশীবিদেশী পাচারকারী চক্রের সকলসদস্য, গডফাদার ও মদতদাতাদের বিচারের আওতায় আনতে হবে।

সভায় নির্বান সাংস্কৃতিক কেন্দ্রের সংগঠক জাকারিয়া অনিমেষ বলেন, এ ঘটনা চোখে আঙ্গুল দিয়ে দেখিয়ে দিচ্ছে যে দেশে অল্প কিছু সুবিধাভোগী বাদে ব্যপকতর দরিদ্র, মধ্যবিত্ত যুবকদের জন্য মানসম্পন্ন কর্মসংস্থান ও উন্নত জীবনের আশ্বাস নেই। এ কারণে দেশের দরিদ্র শ্রমজীবী জনসাধারণ এ নব্য দাস ব্যবসায়ীদের সহজ শিকারে পরিণত হচ্ছে। এদেশের র্ববর শাসক শ্রেণী এবং ততোধিক বর্বর সরকার এ দায় কোনভাবইে এড়াতে পারে না।

সভাপতির বক্তব্যে নিজাম উদ্দিন স্বপন, গণঅধকিার সংগ্রাম কমিটির পক্ষ থেকে দেশের প্রতিটি বিবেকবান, দেশপ্রেমিক, গণতান্ত্রিক ও প্রগিতিশীল ব্যক্তি ও সংগঠনের প্রতি উত্থাপিত দাবীতে সোচ্চার হওয়ার এবং এ বর্বর শাসকশ্রেণীকে উৎখাত করে শ্রমিককৃষকজনগণের মুক্তি ও ক্ষমতা প্রতিষ্ঠার লড়াই বেগবান করার আহ্বান জানান।।

————————

দাবিসমূহ

১। অবিলম্বে সাগরে ভাসমান শ্রমিকদের উদ্ধারে জাহাজ পাঠাতে হবে।

২। নিখোঁজদের অনুসন্ধান ও আটকেপড়া শ্রমিকদের দ্রুত ফিরিয়ে আনার দায়িত্ব সরকারকে গ্রহণ করতে হবে। উদ্ধারকৃতদের ক্ষতিপূরণ ও পুনর্বাসনের ব্যবস্থা করতে হবে।

৩। বাংলাদেশী ও রোহিঙ্গাদের রক্ষা ও পূনর্বাসনে মাইয়ানমারসহ ও আন্তর্জাতিক সংস্থাগুলোকে জরুরী উদ্যোগ গ্রহণ করতে কূটনৈতিক প্রচেষ্টা জোরদার করতে হবে।

৪। জাতীয় ও আন্তর্জাতিক কমিশন গঠন করে বিশেষ ট্রাইব্যুনালে মানব পাচার ও হত্যার সাথে জড়িত সম্পূর্ণ জাতীয় ও আন্তর্জাতিক চক্রকে আইনের আওতায় এনে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দিতে হবে।

৫। পাচারকারী চক্রের সদস্যদের ‘ক্রসফায়ার’এর নামে হত্যা করে গডফাদারদের রক্ষা করা এবং জনগণের চোখে ধুলা দেয়ার অপতৎপরতা বন্ধ করতে হবে

৬। মানবপাচার রোধে দেশের সকল কর্মক্ষম নাগরিকের কাজের সুযোগ তৈরী করতে হবে।

—————————

বার্তাপ্রেরক,

সুজিত সরকার

মিডিয়াসেল, গণঅধিকার সংগ্রাম কমিটি

যোগাযোগ: ০১৭১৩১২৩৭৯৪

Advertisements
মন্তব্য

মতামত জানান...

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s