কবিতা – টি-শার্টে ঝুলাইনি কখনো, চেতনার গহীনে এঁকেছি টেটো, কমরেড, ভেবো না প্রতিরোধেই আছি নিরবচ্ছিন্ন

Posted: জুন 14, 2013 in সাহিত্য-সংস্কৃতি
ট্যাগসমূহ:, , , , , , ,

লিখেছেন: মাহাবুব হাসান

che-5মৃত্যুর স্বপ্ন কী উন্মত্ত উড্ডীন ছিলো

যখন বাতাসে হেমন্তের গন্ধে ভরা রোদের জমকালো দুপুরগুলো বিকেলের পথ ধরে গোধূলীতে এসে উত্তাল লালে সমস্ত পৃথিবীকে জানিয়ে যাচ্ছিল তার সন্ধিলগনের মাহেন্দ্র পার্বণের কথা। তখনও বলিভিয়া সামরিক কালো থাবায় মানুষের অধিকার স্বাধীনতা নখের আঁচড়ে রক্তাক্ত ভূলণ্ঠিত। যেমন ছিলো কিউবায়। সাম্রাজ্য হায়েনার হাতে বন্দী।হাতে মিলল হাত বইয়ের পাতা থেকে জীবন্ত ও অত্যাবশকিয় হয়ে উঠলেন কার্ল মার্ক্স এর লাল ইস্তেহার

চেতনায় ধারালো আগুন

পাঁজরে হাড়ে মজ্জায় শান দিয়ে চললো সমানে সামনের অভিমূখী উর্ধ্বচিত্তের রাঙ্গা পথ ধরে

চিহিৃত হলো শক্রর মুখ ও মুখচ্ছবি

উঠলো জোয়ার

ভাঙ্গনের তীব্র যন্ত্রণায় ছটপট করে উঠলো প্রদীপ্ত মানস চেতনা

অত্যাবশকিয় হয়ে উঠলো লাল নিশান

গাইলো ইন্টারন্যাশনাল

জ্বলে উঠলো সমস্ত চেতনার শরীর

গর্জে উঠলো পোড়ামন

ভাঙ্গতে চাইলো শোষনের বিভৎস ব্যারিকেড

যেখানে জীবন মুক্ত হয় সে প্রসন্নতায় জেগে উঠতে লাগলো সূর্যের সোনালী আভা

আলোরউত্তরণে উদ্ভাসিত কৃষ্ণচূড়ার বাতাসে উড়াতে সাম্যের নিশানা ফিদেলের হাতে হাত রেখে মেহনতী নির্যাতিত কিউবার মানুষের পাশে এসে দাঁড়ালেন

এক দাউ দাউ স্বপ্নের স্থীরতায়

জাগলো মানুষের অন্যায়ের বিরুদ্ধে, শোষণের বিরুদ্ধে, নিষ্পেশনের বিরুদ্ধে

গড়ে উঠলো প্রতিরোধের দূর্গ

যেখানে প্রতিবাদই যথেষ্ট নয় সেখানে প্রতিরোধ করবার দৃপ্ততায় গড়ে উঠলো বিপ্লবের আগুন রাঙ্গা গেরিলা বাহিনী

অন্যায়ের বিরুদ্ধে বিশুদ্ধ আগুনের সংগ্রাম

মৃত্যুই যখন শেষ কথা নয় তখন কে থাকবে মুখ লুকিয়ে? কে নিজেকে শৃংঙ্খলিত করবে শোষকের ঈশারায়?

অগ্নুৎসব হলো

শোষকের রক্তের স্রোতে লিখা হলো সাম্যের গান । কন্ঠভরে সেই গান নিয়ে ছড়িয়ে পড়ল গেরিলারা

যারা ছিলো একদিন স্বপ্নহীন তাদের চেতনায় গেঁথে দিয়ে স্বপ্নের যৌথ লাল খামের চিঠি, অধিকার আদায়ের মত্ত প্রেরণা

জাগলো ভোরের আলোর লাল কিউবা। সংগ্রাম শেষে যেন কিছু দিনের জন্য অবসর চাইলে। নতুন প্রস্তুতির জন্য নিজেকে প্রস্তুত করলে। মন্ত্রী হলে,বৈদেশীক প্রতিনিধি হলে। কিন্তু হঠাৎ এ কোন ঘুম ভাঙ্গলো কমরেড।

মধ্য রাত্রিরে তুমি কি সারা পৃথিবীর নির্যাতিত মেহনতী মানুষের আর্তচিৎকার শুনে আৎকে জেগে উঠলে। তোমার সমস্ত চেতনায় হু হু করে জ্বলে উঠলো আগুন। জেনে গেলে শুধু কিউবাই নয় গোটা পৃথিবীকে জঞ্জাল মুক্ত করে তবেই তুমি ক্ষান্ত হতে পারো। প্রশান্তির চুরুট হাতে হাভানার হেমন্তের রাতে আধ ভেঁজা জোছনায় নিজেকে দায়মুক্ত স্বাধীন ভাবনায় উড়িয়ে রাইফেলটা দেয়ালে ঝুলিযে কলম হাতে লিখে নিতো পারে যৌথ লাল পৃথিবীর প্রথম বিশুদ্ধ প্রেমের কবিতাটি। এর আগে কোন থেমে যাওয়া নেই । বিপ্লবই চূড়ান্ত গন্তব্য। জীবনের লক্ষ্য স্থির হলো সেখানেই যেখানে শোষনবঞ্চণা নেই,অধিকারহীনতা নেই,নেই মানবতা বিবর্জিত পুঁজি অর্থনীতির ঘৃণ্য প্রতিযোগিতার একনায়কচিতো বর্বর যুদ্ধবিগ্রহ, সাম্প্রদায়িক উলম্ফণ আর মানুষে মানুষে বিভেদ সৃষ্টি করার কুপ্রস্তাবনা। স্থীর অটল লক্ষ্য অদম্য সাহসে চেতনায় বেঁধে লাল ইশতেহার পা রাখলে বলিভিয়ায়।শোষন মুক্তির চূড়ান্ত ইতিহাস গড়ে নিতে বিপ্লবী তুমি জীবন্ত কবিতা পাহাড়ের সবুজ নির্জন কন্ঠক পথে পা ফেললে দৃপ্ত পদক্ষেপে দাউ দাউ লাল স্বপ্নে গেরিলার বেশে এগারোটি মাস আগুনে আগুনে ছড়ালে স্পর্ধার সৌরভ। আগামীর কাছে এঁকে দিতে চাইলে মুক্তির অন্য সুর দিক্ষীত করলে তীব্র প্রতিরোধের মন্ত্রে। যখন সব কিছু অন্ধকারে তলিয়ে যাবে,অন্ধ হয়ে যাবে মানবিক চেতনা। শোষণের ভয়াল হিংস্রতায় যখন চারদিক আর্তচিৎকারে কম্পিত হবে তখনই প্রতিরোধে ঝলসে উঠবার প্রত্যয় রেখে একটা মৃত্যু কখনো শেষ নয়, প্রতিবাদই শেষ নয় চূড়ান্ত বিপ্লবের জন্য আগুন হয়ে স্ফুলকি হয়ে জ্বলে উঠতে হয় জানিয়ে যখন তুমি ভালগ্রান্দের হাসপাতালে বুকে অজস্র বুলেটের রক্তাক্ত ক্ষত নিয়ে আমাদের জাগতিকতার অনেক বাইরে তখনো কী আশ্চর্য তোমার দু’চোখ খোলা, তুমি যেন চেয়ে আছো অনাগত কিন্তু নিশ্চিত সেই ভবিষ্যতের দিকে।

তোমার অসমাপ্ত বিপ্লব সম্পন্ন হয়েছে

লাল নিশানাটা উড়ছে পৃথিবীর প্রতিটি আকাশে

শ্রমিক মেহনতীরা দলে দলে লং মার্চ ডাবল মার্চ করে এগিয়ে আসছে মানবজাতির সত্যিকারের অগ্রযাত্রায়

তোমাকে লাল সালাম কমরেড

কমরেড অর্নেস্তো চে গুয়েভারা

অসম্পূর্ণ তোমার বিপ্লবের সম্পূর্ণতার পথ ধরে আমরা লড়ছি অভিনয়হীন অবিরাম

Advertisements

মতামত জানান...

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s