Archive for জানুয়ারি, 2013


image-খণ্ডাংশ

বেদনার স্বভাবে ঈঙ্গিতের রসিকতা বলে কিছুই থাকে না বাকি

আগুনও শীতের ভূমিকায় এতো ভাল অভিনয় আর কখনো করেনি

শুধু যারা জন্ম গ্রহণ আর মৃত্যুর মধ্যে কোন পার্থক্য দেখে না

তাদের সন্তানেরা মাংসের দোকানে অতীব বিশুদ্ধ কবিতার গণিত আওড়ায়

মানিব্যাগের চোরা পকেট থেকে ভালবাসা আর শরীরের বাক্য বেরিয়ে আসে

যা দূরের ছিল তা কাছের সর্বগ্রাসী আমিষের দখলে চলে আসে অনায়াসে (বিস্তারিত…)


লিখেছেন: মনজুরুল হক

পুলিশি এ্যাকশনের রিভার্স

attack-on-police-1-বাংলাদেশের পুলিশ সম্পর্কে সবচেয়ে প্রচলিত প্রবাদ ‘বাঘে ছুঁলে এক ঘাপুলিশে ছুঁলে আঠারো ঘা’। প্রবাদটি এমনি এমনি রচিত হয়নি। সেই প্রাচীন কাল থেকেই অর্থাৎ ব্রিটিশ আমলের হাফপ্যান্ট পুলিশ থেকে আজ অবধি সাধারণ মানুষের প্রতি পুলিশের নৃশংস এবং প্রতিহিংসাপরায়ন আচরণের জন্যই এমন প্রবাদ চালু রয়েছে। আঠারো ঘা হবে যে পুলিশ ছুঁলে সেই পুলিশই যখন নিজেদের শরীরে আঠারো দুগুণে ছত্রিশ ঘা নিয়ে হাসপাতালের বেডে শুয়ে কাতরায় তখন সাধারণ মানুষকে একশ আশি ডিগ্রী ঘুরে ভাবতে বসতে হয় কেন এই কন্ট্রাস্ট? কন্ট্রাস্ট বলার কারণ কি? (বিস্তারিত…)


abstract-art-29-সঙ্কেত

সব কিছু ভেঙে পড়ার আগে আকাশটা থমকে থাকে

ফুসতে থাকে জল আর জলজ প্রাণীর হাঁসফাশ কাঁপায় বাতাস

আকাশের তারাগুলো মুছে গিয়ে মেঘের শরীরে বিদ্যুত ঝলকায়

প্রাণীরা ছুটতে থাকে দিশাহীন আর আস্তাবলের ঘোড়ার হ্রেস্বাধ্বনি

কুকুরের আর্তনাদ ভারি করে তোলে সকল বাতাস (বিস্তারিত…)


লিখেছেন: বন্ধু বাংলা

CHT-9-আদিবাসীদের বিচ্ছিন্নতার কথা, আত্মনিয়ন্ত্রণের অধিকারের কথা আজকাল শুনতে পাওয়া যায়। তবে আদিবাসীদের কথায় যাবার আগে আমি একটু জাতীয়তাবাদ ও বিচ্ছিন্নতাবাদের সাথে পুঁজিবাদ ও সাম্রাজ্যবাদের সম্পর্কটা একটু দেখে নিতে চাই। সামন্তবাদ পুঁজিবাদের বিকাশের জন্য একটা বাধা স্বরূপ ছিল। তাই সামন্তবাদ বিলোপ করতে হয়েছে, এই বিলোপের সাথে বিভিন্ন দেশের বুর্জোয়া জাতীয়তাবাদী আন্দোলনের একটা সম্পর্ক আছে। অর্থাৎ, বুর্জোয়া জাতীয়তাবাদী আন্দোলনের ফলে যে রাষ্ট্র গঠিত হয়, তা পুঁজিবাদের বিকাশে ভূমিকা রাখে। (বিস্তারিত…)


প্রেস বিজ্ঞপ্তি

ছাত্র গণমঞ্চ’র কেন্দ্রীয় আহ্বায়ক কমিটি গঠিত

স্বাধীন ও গণতান্ত্রিক শিক্ষা এবং রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠার লক্ষে শিক্ষার উপনিবেশিকরণ, বাণিজ্যিকরণ, দলীয়করণফ্যাসিরকণের বিরুদ্ধে ছাত্র আন্দোলন গড়ে তুলুন’এ শ্লোগানকে সামনে রেখে জাতীয় গণতান্ত্রিক গণমঞ্চের ছাত্র শাখা ‘ছাত্রগণমঞ্চ’র নতুন আহ্বায়ক কমিটি গঠিত হয়েছে।

আজ ২৫ জানুয়ারি, শুক্রবার, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ডাকসু ভবনে অনুষ্ঠিত ছাত্র গণমঞ্চের আহ্বায়ক কমিটি গঠন সভায় সভাপতিত্ব করেন জাতীয় গণতান্ত্রিক গণমঞ্চের আহ্বায়ক মাসুদ খান। সভায় বক্তব্য রাখেন জাতীয় গণতান্ত্রিক গণমঞ্চের যুগ্ম আহবায়ক এহতেশাম উদ্দিন, সদস্য সচিব রাতুল বারী এবং কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য শান্তনু সুমন। (বিস্তারিত…)


লিখেছেন: আবিদুল ইসলাম

democracy-1-আমাদের দেশে ইতিহাস পাঠ এবং ইতিহাসবিষয়ক জ্ঞানের অবস্থা বড়ই করুণ। তরুণ সমাজের অধিকাংশ সদস্যের ইতিহাসের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ ঘটনার বিষয়ে পর্যাপ্ত তো দূরের কথা সামান্যতম ধারণাও নেই। বাংলাদেশের একের পর এক ক্ষমতায় আসা সরকারগুলোও জনগণের মধ্যে ইতিহাসবিষয়ক সচেতনতা সৃষ্টির কোনো চেষ্টা চালায় না। উপরন্তু সে চেতনা যাতে কোনোভাবেই না আসে সে প্রচেষ্টাই তাদের অব্যাহত থাকে। সত্যিকার ইতিহাসবিষয়ক জ্ঞানের অভাবে এখানে একটা বিষয় খুব হাস্যকর এবং একই সাথে করুণভাবে বর্তমানে দেখা যাচ্ছে। সেটা হলো নিজেদের যথেষ্ট ইতিহাস জ্ঞান আছে এরকম একটা প্রচ্ছন্ন দাবি তুলে অপরাপর যাদের একেবারেই সে জ্ঞান নেই তাদের প্রতি বিভিন্নভাবে কটাক্ষইঙ্গিত করা, তাদের দেশপ্রেম নিয়ে হাহুতাশ করা। (বিস্তারিত…)


peppar-sprayমারাত্মক রাসায়নিক দ্রব্যাদি মিশ্রিত পেপার স্প্রে (যাতে মরিচের গুড়া রয়েছে বলে বলা হয়) বিপজ্জনক কুকুরকে ঘায়েল করার বড় অস্ত্র। http://www.liquidfence.com-এ বলা হয়েছে, কুকুরের ক্ষেত্রে এটা একশত ভাগ কার্যকরি। শুধু কুকুর বা এ জাতীয় হিংস্র জন্তু জানোয়ার ঘায়েল করার জন্যই যে শুধু পেপার স্প্রে ব্যবহৃত হয় তাই নয়, প্রতিবাদী জনগণের প্রতিরোধ সংগ্রাম প্রতিহত করতে এই বিপজ্জনক দ্রব্যটি স্বৈরতান্ত্রিক শাসন রয়েছে এমন কোনো কোনো দেশে ব্যবহার করা হয়ে থাকে। পেপার স্প্রের মতো ভয়ানক ক্ষতিকর দ্রব্যটি ব্যবহৃত হচ্ছে ১৯৭৩ সাল থেকে খোদ মার্কিন মুলুকে। এফবিআই এবং মার্কিন ডাক বিভাগ প্রথম দিকে ভয়ঙ্কর ব্যক্তি এবং জন্তু জানোয়ার ঘায়েল করতে এটি ব্যবহার করে। আর তখন থেকে কমবেশি অনেক দিন পর্যন্তই তারা এটি ব্যবহার করছে। মার্কিন বিচার বিভাগের ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব জাস্টিসএর ওয়েবসাইটে বলা হয়েছে, পেপার স্প্রে সহিংস ও বিপজ্জনক জনগোষ্ঠীর প্রতিবাদ দমনে ব্যবহৃত হয়ে থাকে। আর স্প্রে আক্রান্ত এবং ক্ষতিগ্রস্তদের আইনি হেফাজতে মৃত্যুর ঘটনাও ঘটেছে বলে মার্কিন সংবাদ মাধ্যমগুলোর বিভিন্ন সময় খবর দিয়েছে। (বিস্তারিত…)

রাজনীতি, সংস্কৃতি ও মতাদর্শ

Posted: জানুয়ারি 17, 2013 in অর্থনীতি, আন্তর্জাতিক, দেশ, প্রকৃতি-পরিবেশ, মতাদর্শ, সাহিত্য-সংস্কৃতি
ট্যাগসমূহ:, , , , , , , , , , , , , , , , , , , , , , , , , , , , , , , , , , , , , , ,

লিখেছেন: বন্ধু বাংলা

প্রথম ভাগ ভূমিকা:

আজকাল নতুন প্রজন্মের কাউকে রাজনৈতিক আদর্শের বিষয়ে জিজ্ঞেস করা হলে; প্রচলিত অন্তঃসারশূন্য রাজনৈতিক অবস্থার উদহারণ টেনে গর্বের সঙ্গে বলে, ‘আমি কোন দল করি না। আমার কোন মতাদর্শ নাই’। ইন্টারনেটে সামাজিক যোগাযোগের সাইট, ফুসবুকে অনেকের প্রোফাইল স্ট্যাটাসে দেখা যায়; দেয়া থাকে No political view”। অনেকে আবার এ জাতীয় উত্তরকে আরও বেশি উচ্চ ডিগ্রীতে নিয়ে বলে, I hate politics। অনেকে উদাররূপে নিজেকে উদারনৈতিক জাহির করে, যা বস্তুত মতাদর্শহীন দেউলিয়াত্ব। এরূপ মতাদর্শহীন রাজনৈতিক অবস্থানের পক্ষে তারা যে সব ব্যাখ্যা বিশ্লেষণ প্রদান করেন, সেটা অন্তঃসারশূন্য স্থূল চিন্তার পরিচায়ক। ব্যক্তির মতাদর্শহীন রাজনৈতিক অবস্থানকে রাজনৈতিক সচেতনতার অংশ ভাবা যায় না, অচেতন চিন্তাই তাকে মতাদর্শহীন বা রাজনৈতিকভাবে অসচেতনতার দিকে ধাবিত করে। এটা কোন রূপেই রাজনৈতিক সচেতনতার অংশ নয় বরং চূড়ান্ত বিচারে রাজনৈতিকভাবে অসচেতনতারই অংশ। (বিস্তারিত…)


art works-10-ছবি

একটা সমুদ্র, আকাশ যার বুকে প্রশান্তির রঙ মিশিয়ে

দেখছে জলের শরীর

আকাশের বুক ভরা প্রেম তাই চাঁদের ঈর্ষা

মাঝে মাঝে চাঁদ নিজের শরীর ভেঙে মিলায় সেই জলে (বিস্তারিত…)


লিখেছেন: জুয়েল থিওটোনিয়াস দ্রং

world-indigenous-day-1সংগ্রামী মানুষের সংগ্রাম নিরন্তর। বর্তমান প্রযুক্তির উৎকর্ষতা ও বিশ্বায়নের যুগে তার সংগ্রাম আরও গতিশীল ও ব্যাপক। মানুষ ও মনুষ্যত্ব হয়তো এই পৃথিবী নামক গ্রহটিকে একটি বিশ্বরূপে প্রতিষ্ঠিত করেছে কিন্তু বিশ্বায়নকে সঙ্গী করে প্রযুক্তির উৎকর্ষতা যতই বৃদ্ধি পাচ্ছে, মানুষ ততই হারাচ্ছে তার প্রকৃতস্থতা। এবং সেই সাথে পাল্লা দিয়ে জলবায়ু পরিবর্তনের বিরূপ প্রতিক্রিয়া স্পষ্ট হচ্ছে দিন দিন। এর প্রভাব শুধুমাত্র প্রাকৃতিক পরিবেশেই নয়, বরং মানুষের জীবনেও পড়ছে, বিশেষ করে আদিবাসী জনগোষ্ঠীর ওপর, যারা প্রকৃতির আদিম ও অকৃত্রিম সন্তান। (বিস্তারিত…)