যুক্ত বিবৃতি

পূর্ববাংলার সর্বহারা পার্টি (মাওবাদী একতা গ্রুপ)

ফ্রান্সের কমিউনিস্ট পার্টি (মার্কসবাদীলেনিনবাদীমাওবাদী)

একদিন মুক্ত ভারত আবির্ভূত হবে দুনিয়ায়”

ভারতের পশ্চিমবঙ্গের জঙ্গলমহল অঞ্চলে কমরেড কোটেশ্বর রাও ওরফে কিষানজীর পাশবিক হত্যাকাণ্ডের ঘটনা জানতে পেরে আমরা গভীর শোকাহত।

এই হত্যাকাণ্ড আমাদের অন্তরের অন্তস্থলে আঘাত করেছে। কারণ আমরা কমিউনিস্ট, কারণ ভারত হচ্ছে একটা বিশাল দেশ যেখানে বিশ্বজনগণের এক গুরুত্বপূর্ণ অংশ বাস করেন। পৃথিবীর ইতিহাসে ভারতীয় সংস্কৃতির অবদান বহুবিধ, আর এটা অব্যাহতই থাকবে।

ভারতের গুরত্বের ওপর মাও সেতুঙ যতটা জোর দিয়েছেন ততটা আর কেইবা দিতে পারেঃ

একদিন চীনের মতই ভারত দুনিয়ায় আবির্ভূত হবে সমাজতন্ত্র ও জনগনতন্ত্রের মহান পরিবারের অংশ হিসেবে। সেই দিন মানব ইতিহাসে সাম্রাজ্যবাদ ও প্রতিক্রিয়ার যুগের অবসান ঘটাবে।”

(মাওসেতুঙ, ভারতের কমিউনিস্ট পার্টির সাধারণ সম্পাদক বি.টি. রণদিয়েভের কাছে টেলিগ্রাম, নভেম্বর, ১৯, ১৯৪৯)

তাইতো প্রকৃত কমিউনিস্টরা কখনোই ভারতকে ভুলতে পারেননা, তাইতো কমরেড কোটেশ্বর রাও কিষানজীর মৃত্যু এক ভয়ংকর ব্যাথা, শুধু ভারতীয় বিপ্লবের জন্য নয়, বিশ্ব সর্বহারা বিপ্লবের জন্যও।

আর যখন ভারত সম্পর্কে আমরা খুব অল্পই শুনি, আমাদের মনে হয় তা বাস্তবতার সাথে সঙ্গতিপূর্ণ নয়, তা সংস্কৃতি, রাজনীতি ও মতাদর্শে বিশেষত ভারতের কমিউনিস্ট পার্টি (মাওবাদী) এবং তার নেতৃত্বাধীন গণযুদ্ধ সহকারে ভারতের জনগণের কর্মকাণ্ডের সঠিক প্রতিফলন নয়।

আমাদের আশা, সিপিআই (মাওবাদী) বোঝে যে বিরাট গুরুত্ব আমরা সারা দুনিয়ার কমিউনিস্টরা তাদেরকে দিয়ে থাকি। আমাদের আশা সিপিআই (মাওবাদী) তার আন্তর্জাতিক গুরুত্ব বোঝে। আন্তর্জাতিক প্রতিক্রিয়া ভারতীয় গণযুদ্ধকে যে কোন মূল্যে ধ্বংস করতে চায়। আমাদের আশা সিপিআই (মাওবাদী) তার সংগ্রামের মাত্রা ভালভাবেই বোঝে। এমনকি যদিও সিপিআই (মাওবাদী) ভারতের শ্রমিকশ্রেনীর জন্ম, এমনকি যদি এই সংগ্রাম একটি জাতীয় সংগ্রামও হয়, আন্তর্জাতিক স্তরের এক বিপ্লব/প্রতিবিপ্লব দ্বন্দ্ব এখানে কেন্দ্রীয় ভূমিকা পালন করে।

পেরুর কমিউনিস্ট পার্টির নেতা কমরেড গনজালোর গ্রেফতার এবং নেপালের সংশোধনবাদে রূপান্তরের ফলে মার্কসবাদলেনিনবাদমাওবাদের বর্তমান কঠিণ পরিস্থিতিতে বিশ্বে ভারতীয় গণযুদ্ধ এক আলোক বর্তিকা রূপে আবির্ভূত হয়েছে।

গতকাল ভারতের গণযুদ্ধ সম্পর্কে খুব কম লোকই জানত, আজকে এর প্রভাব খুবই বিরাট, এটা গোটা গ্রহটিতে জ্বলজ্বল করছে।

এই কারণে সিপিআই (মাওবাদী) পশ্চিমবঙ্গের তৃণমূল কংগ্রেস সরকারের সাথে দরকষাকষি করতে পারেনা, যেমনটা করা হয়েছে, ভারতের কেন্দ্রীয সরকার বা রাজ্য সরকারগুলো কখনো এর কোন নিশ্চয়তাই দিতে পারেনা যেহেতু তারা আন্তর্জাতিক প্রতিবিপ্লবের প্রতি পরিপূর্ণভাবে নিবেদিত।

একইভাবে, উদাহারণস্বরূপ আন্তর্জাতিক কমিউনিস্ট আন্দোলনে যা মাথাব্যাথা সেই নেপালে ব্যর্থতার মত সমস্যাগুলোর প্রতি সিপিআই (মাওবাদী) নীরব থাকতে পারেনা এবং শহরগ্রাম দ্বন্দ্ব, পরিবেশবিদ্যা, বহুজাতিক কোম্পানিগুলোর লোভের বিরুদ্ধে আমাদের গ্রহটিকে রক্ষা করার মত গুরুত্বপূর্ণ প্রশ্নগুলিতেও নীরব থাকতে পারেনা।

এখানে উল্লেখিতগুলির মত বহুবিধ প্রশ্নে, সিপিআই (মাওবাদী) সংগ্রামের অগ্রভাগে দাঁড়িয়ে আছে, এবং তাকে এসবকিছুকেই সাংস্কৃতিক, মতাদর্শিক ও রাজনৈতিক স্তরে প্রকাশ করতে হবে।

ভারতের গণযুদ্ধ মোকাবেলা করছে আন্তর্জাতিক প্রতিবিপ্লব কর্তৃক পরিচালিত এক বিরাট প্রতি আক্রমণকে। একে জয় করতে ভারতের গণযুদ্ধকে অবশ্যই অন্য সব দেশের বিপ্লবীদেরও মতাদর্শিক, রাজনৈতিক ও সাংস্কৃতিক হাতিয়ার প্রদান করে সহায়তা করতে হবে।

বাংলাদেশের পূর্ববাংলার সর্বহারা পার্টি (মাওবাদী একতা গ্রুপ) ও মনিপুরের কাংলেইপ্যাক কমিউনিস্ট কমিউনিস্ট পার্টির যৌথ দলিলে যেমনটা বলা হয়েছেঃ

আমরা বিশ্বাস করি, সঠিক রণকৌশল সঠিক রণনীতি থেকে আসে, আর সঠিক রণনীতি এক সঠিক মতাদর্শিক ও রাজনৈতিক লাইন থেকে আসে। আমরা বিশ্বাস করি, সাম্রাজ্যবাদ, পুঁজিবাদ ও ঔপনিবেশিক শাসকের বিরুদ্ধে সংগ্রাম সংশোধনবাদ, একাধিপত্যবাদ ও সুবিধাবাদের বিরুদ্ধকার সংগ্রামের সাথে হাত ধরাধরি করে চলে।

আমরা বিশ্বাস করি, শাসক ঔপনিবেশিক বুর্জোয়ারা কখনোই সংগ্রাম বিনা ক্ষমতা ছেড়ে দেবেনা। উপনিবেশিক শাসনের অবসান ঘটানো সম্ভব কেবল সশস্ত্র সংগ্রামের মাধ্যমে ক্ষমতা দখলের জন্য জনমত সৃষ্টি করার মাধ্যমেই।

আমরা বিশ্বাস করি, দক্ষিণ এশীয় ভূখণ্ডে যেকোন সশস্ত্র অভ্যুত্থান অনিবার্যভাবে ধ্বংস হবে জনগণের শক্তিমত্ত বিপ্লবী স্তরসমূহের গণ সমথনের এক বস্তুগত পরিস্থিতির উত্থান না ঘটা পর্যন্ত।”

বস্তুগত পরিস্থিতির সেই সময় আসছে, এবং সেই সম্ভাবনাসমূহ কাজে লাগানো যাবে কেবল যদি মার্কসবাদলেনিনবাদমাওবাদকে শ্রমিকশ্রেণীর আন্তর্জাতিক মতাদর্শ হিসেবে উপলব্ধি করা হয়, যদি সংগ্রামের পরিধিকে একদিকে জাতীয় হিসেবে বোঝা হয়, কিন্তু অন্যদিকে বিশ্ব সর্বহারা বিপ্লবের যুগে আন্তর্জাতিকতাবাদী হিসেবেও তাকে বুঝতে হবে।

বিশ্ব সর্বহারা বিপ্লবের অংশ হিসেবে ভারতের গণযুদ্ধের বিজয় অনিবার্য!

আসুন মার্কসবাদলেনিনবাদমাওবাদের ভিত্তিতে এক নতুন আন্তর্জাতিক গড়ে তুলি!

পূর্ববাংলার সর্বহারা পার্টি (মাওবাদী একতা গ্রুপ)

ফ্রান্সের কমিউনিস্ট পার্টি (মার্কসবাদীলেনিনবাদীমাওবাদী)

নভেম্বর ২৮, ২০১১

Advertisements

মতামত জানান...

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s