ফিরে পাওয়া

Posted: অক্টোবর 14, 2011 in সাহিত্য-সংস্কৃতি
ট্যাগসমূহ:, ,

লিখেছেন: আলবিরুনী প্রমিথ

হেঁটে বেড়ানো অনেক আগে থেকেই আমার প্রিয়

কি গ্রীষ্মের দুপুর কি বর্ষার স্যাতস্যাতে বিকেল ,

কিছুক্ষন হেঁটে না বেড়ালে আমার ভালই লাগেনা ।

কিন্তু এখন টের পাই আগের সেই ভালোলাগার আমেজটা

প্রায় হারিয়ে যেতে বসেছে ,

এমন নয় যে এখন হেঁটে বেড়াতে

আমি বিরক্তবোধ করি ।

কিন্তু আগে যেমন চারপাশ খেয়াল না করেই

হাঁটতে থাকতাম , কেবল হেঁটেই যেতাম

এখানে থেকে সেখানে , সেখান থেকে এখানে ।

সেই খেয়াল না করার মাঝে যেই আনন্দ ছিল

সেই আনন্দ এখন নেই ,

এখনো আমি চারপাশ খেয়াল করিনা

কিন্তু সেটা অনাগ্রহে , অবহেলায় ।

ভেবেছিলাম হয়ত আমার মাঝেই কাজ করে

এইরূপ নির্লিপ্ততা , এই ধূসরতা ।

কিন্তু না কেবল আমি নই , আরো অনেকেই

আমার মতই হতাশায় নিমজ্জিত ,

তাদের প্রত্যেকের মুখেই কোরাসে বেজে উঠে

সুখে না থাকার অসহনীয় গান ।

এক বান্ধবী আমার তার বাগানের হাসনাহেনার গন্ধে

আর উদাসী হয়না , হতে পারেই না ।

কারন সে বুঝে গেছে তার এই উদাসী হওয়ায়

কারোই কিছু যায় আসেনা , কখনো আসত না ।

আমার যেই বন্ধুটি কথায় কথায় শেক্সপিয়ার কোট করতো

‘ Everything is fair in love and war ‘ ,

সেও অনেকদিন হল তা বলা ছেড়ে দিয়েছে ।

সে নিজে জেনে গেছে এই অস্থির সময়ের মাদকে

ভালোবাসা যদি মেলে তবে তা প্লাস্টিকের ,

প্রেম যদি হাতছানি দেয় তবে সেটা

কেবল পথকে ভুলিয়ে দেয় ,

নতুন পথ সৃষ্টি করেনা ।

নিজের হতাশাতেও তাদের বিমর্ষতায় আমার

তাদের প্রতি মায়া হয় , সত্যি মায়া হয় ,

বেচারারা জানেনা , কিভাবে প্রেমে মুক্তি মিলবে এখন

যেখানে বিচ্ছেদ জন্ম দেয়না বেহালার সুরের চেয়েও

করুন কোন সুরের ,

যেখানে ভালোবাসার মেলবন্ধনে মেলেনা

বিটোভেনের নাইন্থ সিম্ফনী শোনার তীব্র কিন্তু

গভীর কোন আনন্দ ।

তারা আজো বোঝেনি এই ফূর্তির যুগে

কেউ কারো জন্যে অপেক্ষা করেনা ,

কারন তার নিয়ম নেই ।

এই সংঘাতপূর্ন সময়ে একেবারেই সম্ভব নয়

সময়ের অনুগত সন্তান হয়ে টাটকা গোলাপের

স্বাদ উপভোগ করবার বাসনায় মজে থাকা ।

এখন প্রতিটি সমস্যায় একটি সমাধান নয় ,

এখন প্রতিটি সমাধানে দুটি করে সমস্যা

দ্বন্দ্বের , সংঘাতের রূপগুলোও যদি চেনা না হয় তবে

বৃথা সমস্ত আশার , প্রত্যাশার ।

আর সেই রূপগুলো চিনতে গেলেই ধীরে ধীরে উপলব্ধি হয়

সময় আর নেই , কোনভাবেই আর গড়িমসি করা যায়না ,

অনেক তো হল সময়ের সন্তান হয়ে থাকা , আর কত ?

এবার বরং নিজেরাই সময়কে ঘুরিয়ে দেই , নিজেরাই হয়ে উঠি

সময়কে চালনা করবার কান্ডারী ।

তবে আবার আমি ফিরে পাই আমার হাঁটার আনন্দ ,

বান্ধবীটি আমার খুঁজে পাক হাসনাহেনার গন্ধে

মন উদাস হবার মন্ত্র ।

আর সেই বন্ধুটি হৃদয়ে লালন করতে থাকুক

শেক্সপিয়ার, কীটস, শেলী ।।

Advertisements

মতামত জানান...

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s